মারাদোনার মৃত্যু তদন্তে নয়া মোড়, চিকিৎসক সহ অভিযুক্ত ৭

Mysepik Webdesk: অবহেলাই ছিল কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো মারাদোনার মৃত্যুর কারণ। এমনই ইঙ্গিত মিলেছে অডিয়ো ফাঁস হওয়ার পরে। এর ফলে চিকিৎসকসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আনা হয়েছে খুনের অভিযোগ। সান ইসিদ্রোর প্রসিকিউটর অফিস বিচারকের কাছে এই সকল অভিযুক্তদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করার অনুরোধ জানিয়েছে। ইএসপিএন-এর রিপোর্টে এমনই প্রকাশিত হয়েছে। ২০২০ সালের ২৫ নভেম্বর বিশ্বকে কাঁপিয়ে ৬০ বছর বয়সে প্রয়াত হন মারাদোনা। তবে তাঁর মৃত্যু স্বাভাবিক কিনা, তা নিয়ে বরাবরই দাবি জানিয়ে এসেছিল মারাদোনার পরিবার। হাসপাতালে সঠিক চিকিৎসা পাননি, অবহেলা করা হয়েছিল তাঁকে— এমনই অভিযোগ আনা হয়েছিল পরিবারের তরফ থেকে। প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, তাঁদের সেই অভিযোগ ধীরে ধীরে সত্যের রূপ নিচ্ছে।

আরও পড়ুন: প্রেমিকাসহ পাকড়াও, স্ত্রীর ভয়ে পাঁচ তলা থেকে ঝাঁপ নেইমারের বন্ধুর

মারাদোনার মৃত্যুর পর তাঁর আইনজবী মাতিয়াস মোরিয়া পূর্ণ তদন্তের বাবি জানান। তদন্ত শুরু করে সান ইসিদ্রোর প্রসিকিউটর অফিস। ২০ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের প্যানেলের তদন্তের পর রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, ‘যত্নহীন এবং ত্রুটিপূর্ণ’ ছিল মারাদোনাকে দেওয়া চিকিৎসা। সূত্রের খবর, অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে অভিযুক্তদের ৮ থেকে ২৫ বছর অবধি জেল হতে পারে। যদিও মারাদোনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ৩৯ বছর বয়সি লিওপোলদো লিক এবং সাইক্রিয়াটিস্ট অগাস্টিনা কোসাচেভ তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। অভিযুক্তদের মধ্যে আরো রয়েছেন দুজন নার্স, একজন নার্স কো-অর্ডিনেটর, একজন সাইকোলজিস্ট এবং আরো একজন চিকিৎসক। জানা গিয়েছে যে, ৩১ মে অভিযুক্তদের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *