বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সেরার খেতাব নিউজিল্যান্ডের

New Zeland

Mysepik Webdesk: টিম ইন্ডিয়ার এই ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে গর্ব করে সকলে। অথচ এই ব্যাটিং লাইনআপের চূড়ান্ত দায়িত্বজ্ঞানহীনতা ঐতিহাসিক বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে কাল হয়ে দাঁড়াল। যে টেস্টের বেশিরভাগ সময়টাই বৃষ্টিতে পণ্ড হয়ে গিয়েছে, সেই টেস্ট খুব বেশি মিরাকেল না হলে ড্র হত। বিরাট কোহলি এবং কেন উইলিয়ামসন যৌথভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি হাতে তো দিতে পারতেন। কিন্তু শেষমেশ ‘অঘটন’ই ঘটল, তাও আবার ভারতীয় দলের পক্ষে।

আরও পড়ুন:  ক্রোয়েশিয়ার কাণ্ডারি মদ্রিজের ভূয়সী প্রশংসায় কোচ

অহেতুক তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে নিজেদের প্যাভিলিয়নে ফেরার যাত্রা অব্যাহত রাখলেন বিরাট-রাহানেরা। সাতসকালে কাইল জেমিসনের অফস্ট্যাম্পের বাইরের বল অহেতুক খোঁচা দিয়ে সাজঘরে ব্যক্তিগত ১৩ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরেন ভারত অধিনায়ক। সেই শুরু। তারপর একে একে ফিরে ফিরে গেলেন পুজারা (১৫), রাহানেরা (১৫)। রবীন্দ্র জাদেজা ও ঋষভ পন্থ মিলে একটা পার্টনারশিপ গড়ার চেষ্টা করেছিলেন বটে। কিন্তু তাঁদের অংশীদারিত্ব যখন ৩৩ রানে, আউট হয়ে যান জাদেজা। ১৬ রানে ওয়াগনারের বলে জাদেজা ফেরার পর, পন্থের ইনিংসও বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। তিনি বোল্টের বলে ৪১ রানের মাথায় আউট হন। যদিও বলা ভালো, উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসেন ভারতীয় এই উইকেটরক্ষক। একবার জীবন ফিরে পেয়েও খামোকাই বল তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ আউট হন তিনি।

আরও পড়ুন:  দিল্লি স্পোর্টস ইউনিভার্সিটির প্রথম উপাচার্য হিসাবে নিযুক্ত কর্ণম মালেশ্বরী

মহম্মদ শামি ১০ বলে ১৩ রান করেন। ভারতের ইনিংস ১৭০ রানে অলআউট হয়ে যায়। প্রথম ইনিংসে ৩২ রানে এগিয়ে থাকার সুবাদে নিউজিল্যান্ডের সামনে লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৩৯। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দলগত ৩৩ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় কিউয়িরা। টম ল্যাথাম রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে স্টেপ আউট করে খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্প হন। তিনি ৯ রানে সাজঘরে ফেরেন। এরপর কনওয়ে আউট হন ১৯ রানে। বোলার সেই অশ্বিন। এরপর আর তেমনভাবে দাঁত ফোটাতে দেখা যায়নি ভারতীয় বোলারদের। কিউয়ি দলনয়ক কেন উইলিয়ামসন এবং রস টেলরের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ভর করে ঐতিহাসিক বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। এরসঙ্গে তারা যে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে ফাইনালে ইংল্যান্ডের সঙ্গে হারের জ্বালা মেটাল, তা বলাই বাহুল্য। অন্যদিকে, বিরাটরা আবারও কোনও আইসিসির প্রতিযোগিতায় ট্রফিলেস রইলেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *