আগামী সপ্তাহে তেহরান যাত্রা পারমাণবিক মনিটরিং এজেন্সির প্রধানের

Mysepik Webdesk: রাষ্ট্রসংঘের পারমাণবিক মনিটরিং এজেন্সির প্রধান পরের সপ্তাহে তেহরান সফর করবেন। ইরানি কর্মকর্তাদের উপর চাপ প্রয়োগ করার জন্য যেখানে আরও বেশি পারমাণবিক উপাদান সংরক্ষণ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। শনিবার (২২ আগস্ট) সংগঠনটি এই তথ্য জানিয়েছে। গতবছরের ডিসেম্বরে আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার মহাপরিচালক রাফেল গ্রোসি দায়িত্ব গ্রহণের পর এটি ইরানের প্রথম সফর হবে। একইসঙ্গে পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে ইরানের উপর অনেক আন্তর্জাতিক চাপের মধ্যেও তার এই সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন: দাউদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস পাকিস্তানের

তাঁর যাত্রার মূল লক্ষ্য হল, ২০০০-এর দশকের প্রথমদিকে যে জায়গাগুলি অ্যাক্সেস দেওয়া হয়নি, সে জায়গাগুলিতে অ্যাক্সেসের দাবি করা। ইরান ২০১৫ সালে বিশ্ব শক্তির সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। ইরান বলেছে যে, আইএইএর পরিদর্শকদের সাইট পরিদর্শন করার কোনও আইনগত ভিত্তি নেই।

আরও পড়ুন: আর কতদিন থাকবে করোনাভাইরাসের দাপট, জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

গ্রোসি একটি বিবৃতি জারি করে বলেছিলেন, “ইরানের অ্যাক্সেসের সমস্যা সমাধানের জন্য তেহরানের সভা থেকে মুলতবি থাকা প্রশ্নগুলির সমাধানে দৃঢ় অগ্রগতি লক্ষ্য করা উচিত।” তিনি আরও বলেন, “আমি আশা করি ইরান সরকারের সঙ্গে একটি অর্থবহ ও সমবায় চ্যানেল তৈরি করা হবে, যাতে সরাসরি সংলাপ অনুষ্ঠিত হতে পারে। যা এখন এবং ভবিষ্যতেও মূল্যবান হতে পারে।”

আরও পড়ুন: চিনের করোনা পরিস্থিতি লুকিয়ে রাখার ফল গুনছে গোটা বিশ্ব, চাঞ্চল্যকর দাবি মার্কিন গোয়েন্দাদের

ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলির ইরানি প্রতিনিধি ট্যুইট করেছেন, “আমরা আশা করি এর মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা আরও জোরদার হবে।” মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একতরফাভাবে ২০১৮ সালে ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি থেকে আলাদা হয়েছিলেন। তখন থেকেই ফ্রান্স এই চুক্তি ধরে রাখতে ব্রিটেন, জার্মানি, রাশিয়া ও চিন লড়াই করছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *