ট্রফি পাওয়ার দিনে অন্য রকম উদ্‌যাপন আই লিগ জয়ের

Football

শুভঙ্কর বিশ্বাস

গত মার্চ মাসে জোসেবা বেইতিয়ার চোখ ধাঁধানো পাসিংয়ের ওপর নির্ভর করে বাবা দিওয়ারার নিঁখুত মাপা শটে আইজল এফসি-র জালে বল জড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে অবসান ঘটেছিল দীর্ঘ প্রতীক্ষার। পঞ্চমবারের জন্য আই লিগ জয়ী হয়েছিল গঙ্গাপারের ক্লাব ‘মোহনবাগান’। মোহন-জনতার ‘হ‍্যামলিনের বাঁশিওয়ালা’ কিবু ভিকুনার তুলির স্পর্শে, দেশের ফুটবল ক‍্যানভাসে অঙ্কিত হয়েছিল বাংলার ফুটবলের ঐতিহ্যশালী সবুজ মেরুন রং।

আরও পড়ুন: ২০২১-এ দর্শকবিহীন উইম্বলডন!

ঠিক তারপরেই কোভিড মহামারির ঝড় আছড়ে পড়ে পৃথিবীর বুকে। সেই কারণে আই লিগ জয়ের উদ্‌যাপন করা যায়নি। গতকালই কলকাতার এক নামি পাঁচতারা হোটেলে গত মরশুমের মোহনবাগান দলনেতা ধনচন্দ্র সিং ও ক্লাব কর্তাদের উপস্থিতিতে, মোহনবাগান ক্লাবকে আই লিগ ট্রফি তুলে দেন সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের সচিব সুনন্দ ধর।

আরও পড়ুন: ৯ মাসের গর্ভবতী অ্যাথলিট সাড়ে ৫ মিনিট দৌড়ে অবাক করলেন দুনিয়াকে

জাতীয় ক্লাবের এই ঐতিহাসিক জয়কে স্মরণীয় করে রাখতে শারদীয়ার প্রাক্কালে আদি সপ্তগ্রামের ‘বিবেকানন্দ আশ্রমের’ অভিভাবকহীন শিশুদের সঙ্গে সময় কাটাল গত জুলাই মাসে গঠিত হওয়া মোহনবাগান সমর্থকদের সংগঠন ‘মগরা ত্রিবেণী মেরিনার্স ফোরাম’। সংগঠনের সদস্যরা শিশুদের হাতে শারদীয়ার উপহারস্বরূপ নতুন জামা-কাপড় তুলে দিলেন। এই উপলক্ষ্যে আশ্রমের শিশুদের নিয়ে একটি প্রীতি ফুটবল খেলারও আয়োজন করা হয়।

এই কর্মসূচিকে ঘিরে আশ্রমের শিশুদের উন্মাদনা ছিল সীমাহীন। খেলা শেষে উদ‍্যোক্তারা উইনার্স এবং রানার্স আপ ট্রফিও প্রদান করেন। ‘মগরা ত্রিবেণী মেরিনার্স ফোরাম’-এর সদস্যরা জানান, ভবিষ্যতেও তাঁরা এমনই বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে তাঁদের প্রাণাধিক প্রিয় মাতৃসম‌ ক্লাব ‘মোহনবাগান’-এর গৌরব ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ অব্যাহত রাখবেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *