একের পর এক ধর্ষণ, যোগী আদিত্যনাথের পদত্যাগের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশে রাষ্ট্রপতির শাসনের দাবি বিরোধীদের

Mysepik Webdesk: সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের হাতরাসে ঘটে যাওয়া নারকীয় গণধর্ষণ কাণ্ডের পর রাগে ফুঁসছে গোটা দেশ। সেই পরিস্থিতিতে বলরামপুরে আরও একটি গণধর্ষণের কান্ড ঘটেছে। এমতাবস্থায় উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিলেও তাতে মোটেই খুশি নয় বিরোধীরা। ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথের ইস্তফার দাবি করেছেন তাঁরা। পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশে রাষ্ট্রপতির শাসনেরও দাবি তুলেছেন তাঁরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে হাতরাসে।

আরও পড়ুন: করোনা আবহে ট্রেন সফরের ক্ষেত্রে মানতে হবে এই নিয়মগুলি

সূত্রের খবর, হাতরাসে মৃত তরুণীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে ইতিমধ্যেই রওনা হচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি ও রাহুল গান্ধি। উত্তরপ্রদেদেশের ঘটনার রেশ ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছে দিল্লি পর্যন্ত। এদিন কংগ্রেস, বাম, ভীম রাও আর্মির সদস্যরা একজোট হয়ে নয়াদিল্লির উত্তরপ্রদেশ ভবন ও ইন্ডিয়া গেটের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। দিল্লি পুলিশ ৩২ জনকে সেখান থেকে আটক করেছে।

আরও পড়ুন: ফের কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন, শহীদ এক জওয়ান

এদিকে হাতরাসের ঘটনার তদন্ত করতে উত্তরপ্রদেশ সরকার একটি কমিটি গঠন করেছে। সাত দিনের মধ্যে তদন্তের রিপোর্ট পেশ করবেন তাঁরা। ফার্স্ট ট্র্যাক কোর্টে সেই মামলার শুনানি হবে। পাশাপাশি নির্যাতিতার পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের কথাও ঘোষণা করেছেন যোগী আদিত্যনাথ। অন্যদিকে নির্যাতিতার মায়ের দাবি, তার মেয়ের মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে না দিয়ে জোর করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশই শেষকৃত্য করেছে। পরিবারের লোকজনকে শেষবারের জন্যও দেখতে দেওয়া হয়নি মৃতদেহ।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *