Latest News

Popular Posts

কেন্দ্রের ডাকা বৈঠক বয়কট বিরোধীদের, ‘মানুষই ওদের বয়কট করেছে’, কটাক্ষ মন্ত্রীর

কেন্দ্রের ডাকা বৈঠক বয়কট বিরোধীদের, ‘মানুষই ওদের বয়কট করেছে’, কটাক্ষ মন্ত্রীর

Mysepik Webdesk: রাজ্যসভার ১২ সাংসদকে সাসপেন্ড করার পর থেকেই বিরোধীদের হই-হট্টগোল ও বিক্ষোভে রোজই পন্ড হচ্ছে সংসদ শীতকালীন অধিবেশন। বিরোধী দলগুলির সঙ্গে এই বিরোধ মেটাতে রবিবারই কেন্দ্রের তরফে চার বিরোধী দলকে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। সোমবার সকাল দশটায় চার বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা কেন্দ্রীয় সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশীর। তবে কংগ্রেস, তৃণমূলের কঠোর অবস্থানে। সরকারের প্রস্তাব নাকচ করে দিল তৃণমূল-সহ বিরোধী শিবির।

আরও পড়ুন: দূরপাল্লার ট্রেনেও এবার মহিলাদের জন্য চালু হচ্ছে বিশেষ আলাদা আসন সংরক্ষণ ব্যবস্থা

সূত্রের খবর, বিরোধীদের বিক্ষোভ তুলে নিতে যে যে দলের সাংসদরা সাসপেন্ড হয়েছেন, সেই সব দলের নেতাদের আলোচনার জন্য ডেকেছিল কেন্দ্র। রবিবার সন্ধেয় কংগ্রেস (Congress), তৃণমূল, সিপিএম (CPM) এবং সিপিআইয়ের (CPI) দলনেতাদের আলোচনার জন্য ডেকেছিলেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী। কিন্তু সরকারের সেই ডাকে সাড়া দেয়নি কোনও বিরোধী দলই। বিরোধী দল সূত্রে খবর, তারা সরকারের আমন্ত্রণের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সকাল ৯ টা ৪৫ মিনিটে সংসদে রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খারগের ঘরে একটি বৈঠক করবেন।

আরও পড়ুন: ওমিক্রনের তেমন প্রভাব পড়বে না ভারতে, যুক্তি দিয়ে বোঝালেন আইআইটির অধ্যাপক

শুধুমাত্র ৫টি দলকে ডাকার প্রতিবাদ জানিয়ে রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে ও বামেদের তরফে কেন্দ্রকে চিঠি দেওয়া হয়। চিঠিতে তিনি লেখেন, ১২ সাংসদের সাসপেনসনের প্রতিবাদে সমস্ত বিরোধী দলই ঐক্যবদ্ধ। আমরা ২৯ নভেম্বর থেকেই অনুরোধ করে আসছি যে, রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বা সভার নেতা পিযুষ গয়াল অচলাবস্থার অবসানের জন্য সমস্ত বিরোধী দলগুলির নেতাদের বৈঠকে ডাকুন। আমাদের এই যুক্তিসঙ্গত অনুরোধ মানা হয়নি। এর ওপর শুধুমাত্র  পাঁচ বিরোধী দলের নেতাদের বৈঠকে ডাকার সিদ্ধান্ত অন্য়ায্য ও দুর্ভাগ্যজনক। 

আরও পড়ুন: বিপিন রাওয়াতের মৃত্যু থেকে শিক্ষা নিয়ে ভিভিআইপি কপ্টার ওড়ানোর প্রটোকল বদলাচ্ছে বায়ুসেনা

এদিকে, বিরোধীরা জানিয়ে রেখেছে যে ১২ জন সাংসদের সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিক্ষোভ জারি থাকবে। সব বিরোধী দলকে ডাকা না হলে আগামিকাল সরকারের সঙ্গে বৈঠকে তাদের যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা নেই বলেই বিরোধী দলগুলির সূত্রে খবর।বিরোধী শিবির মনে করছে, এভাবে বাকি ১০টি দলকে বাদ দিয়ে শুধু চারটি দলকে আলোচনায় ডাকার পিছনে সরকারের উদ্দেশ্য একটাই, বিরোধী ঐক্যে চিড় ধরানো। কিন্তু বিরোধী শিবির এখন ঐক্যবদ্ধ। এভাবে ভাঙন ধরানোর চেষ্টা করে লাভ হবে না।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *