অসামান্য প্রত্যাবর্তন, মেলবোর্নের মাটিতে টানা ৬ বছর অপরাজেয় থেকে সিরিজে সমতা ফেরাল ভারত

Mysepik Webdesk: মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। এই জয়ের সঙ্গে দুর্দান্ত এক প্রত্যাবর্তন করে ভারত চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজটিতে সমতা ফিরিয়েছে। গত ৬ বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টে হারেনি টিম ইন্ডিয়া। ২০২৮-র ডিসেম্বরে মেলবোর্ন টেস্টে আয়োজকদের ১৩৭ রানে পরাজিত করেছিল ভারত। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে মেলবোর্নের মাটিতে বক্সিং ডে টেস্ট ড্র হয়েছিল।

আরও পড়ুন: বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিনে দুর্দান্ত টিম ইন্ডিয়া

ম্যাচে টস জিতে অস্ট্রেলিয়া প্রথমে ব্যাট করে ১৯৫ রান তোলে। এর পরে টিম ইন্ডিয়া প্রথম ইনিংসে ৩২৬ রান করে ১৩১ রানের লিড নিয়েছিল। জবাবে অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১.৯৪ রানরেটে ১০০.১ ওভারে ২০০ রান করে ভারতকে ৭০ রানের লক্ষ্য দেয়। ১৯৭৮ সালের পর থেকে অস্ট্রেলিয়ার হোম গ্রাউন্ডে ৮০ ওভারেরও বেশি খেলা ধীরতম ইনিংস এটি।

আরও পড়ুন: রাহানের ক্যাপ্টেন নক, ২য় দিনের শেষে ৮২ রানের লিড ভারতের

ছোট টার্গেটের পিছনে ছুটতে গিয়ে শুরুটা ভালো হয়নি ভারতের। মাত্র ১৯ রানে দু;টি উইকেট হারায় তারা। ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল ৫ এবং চেতেশ্বর পুজারা ৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। মিচেল স্টার্কের বলে ইনিংসের চতুর্থ ওভারে উইকেটরক্ষক টিম পেইনের হাতে ক্যাচ দিয়ে আবার ব্যর্থ হন মায়াঙ্ক। তবে তিনি তৃতীয় টেস্টে প্রথম একাদশে থাকবেন কিনা, সেই বিষয়ে প্রশ্ন উঠে গেল। এর পরের ওভারের প্রথম বলেই প্যাট কামিন্সের ওভারে ক্যাচ আউট হন পুজারা। যদিও অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানে এবং ওপেনার শুভমান গিল শেষ অবধি থিতু হয়ে টিমকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। শুভমান ৩৫ ও রাহান ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন।

আরও পড়ুন: বক্সিং ডে টেস্টে পাল্লা ভারী ভারতের

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ক্যামেরন গ্রিন ১৪৬ বলে সর্বোচ্চ ৪৫ রান এবং ওপেনার ম্যাথু ওয়েড ১৩৭ বলে ৪০ রান করেছিলেন। মার্নাস লাবুশানে ২৮ এবং প্যাট কামিন্স ২২ রান করেন। ভারতের হয়ে সর্বাধিক ৩ উইকেট নিয়েছিলেন মহম্মদ সিরাজ। জসপ্রীত বুমরাহ, রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং রবীন্দ্র জাদেজা পান দু’টি করে সাফল্য। আহত উমেশ যাদব একটি উইকেট নিয়েছিলেন।

চতুর্থ দিন অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ১৩৩ রানে খেলা শুরু করে। প্যাট কামিন্স এবং ক্যামেরন গ্রিন সপ্তম উইকেটে ৫৭ রানের জুটি গড়েন। তবে যে দলে জসপ্রীত বুমরাহ রয়েছেন, সেই দল যে যখন-তখন ম্যাচের রং বদলে দিতে পারে, তা আরও একবার প্রমাণিত হল। অজিদের প্রথম ধাক্কাটা লাগল ১৩৩-এর সঙ্গে আরও ২৩ রান যোগ করার পর। বুমরাহের বলে প্যাট কামিন্স স্লিপে মায়াঙ্ক আগরওয়ালের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলয়নে ফেরেন। বুমরাহর পর মহম্মদ সিরাজ টানা ২ উইকেট নিয়েছিলেন। তিনি একদিক সামলে রাখা অলরাউন্ডার ক্যামেরন গ্রিনকে আউট করেন। তাঁর ক্যাচটি রবীন্দ্র জাদেজা নিয়েছিলেন। এর পরে উইকেটরক্ষক ঋষভ পন্থের হাতে ক্যাচ দিয়েছিলেন নাথাল লায়ন (২)।

এই ম্যাচে ৩৩ রানে মোট ৬ উইকেট নিয়েছিলেন ভারতীয় ফাস্ট বোলার বুমরাহ। মেলবোর্নে এটিই এখন পর্যন্ত তাঁর সেরা পারফরম্যান্স। এর আগে, এমসিজি-তে তিনি ৫৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন। বুমরাহ মেলবোর্ন ক্রিকেট মাঠে ৭টি টেস্ট খেলেছেন। ১৩.০৬ গড়ে ১৫টি উইকেট শিকার করেছেন ২৭ বছরের এই পেসার। কথায় আছে, শেষ ভালো যার সব ভালো তার। বছরের শেষটা এভাবেই ‘ভালো’ ভাবে শেষ করল বিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে রাহানের ভারত।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *