জিম্বাবোয়েকে হারিয়ে ২-০ লিড নিল পাকিস্তান

Mysepik Webdesk: দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে জিম্বাবোয়েকে ৬ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে জিম্বাবোয়ে ৪৫.১ ওভারে ২০৬ রানে অলআউট হয়ে যায়। জবাবে পাকিস্তান ৩৫.২ ওভারে ৪ উইকেটে ২০৮ রান করে ম্যাচটি জিতে নেয়। অধিনায়ক বাবর আজম ৭৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। একইসঙ্গে ইমাম-উল-হক ৪৯ রান করেছিলেন। এই জয়ের সঙ্গে সঙ্গে পাকিস্তান জিম্বাবোয়ের বিপক্ষে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায়।

আরও পড়ুন: বিতর্কের মধ্যে আই লিগ ট্রফি সমর্থকদের জন্য প্রদর্শনের ঘোষণা মোহনবাগান ক্লাব কর্তৃপক্ষের

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের পরে জিম্বাবোয়ে দল খারাপ শুরু করে। ৫৯ রানে ৩টি উইকেটের পতন হয়। ক্যাপ্টেন চামু চিভাভা, ক্রেগ ইরভিন এবং ব্রায়ান চারি বিশেষ কিছু করতে পারেননি। এর পরে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টেলর চতুর্থ উইকেটে শন উইলিয়ামসের সঙ্গে ৬১ রানের জুটি গড়েন। টেলর করেন ৩৬ রান।

আরও পড়ুন: করোনাকে জয় করে ফেরার ম্যাচে জোড়া গোল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর

টেলর আউট হওয়ার পরে জিম্বাবোয়ের ব্যাটিংয়ে ধস নামে। ওয়েসলি মাধওয়ার (১০), আলেকজান্ডার রাজা (২), টেন্ডাই চিসোরো (৭)— তিনজনকেই ইফতিখার আহমেদ প্যাভিলিয়নে পাঠান। এদিকে, উইলিয়ামস তাঁর ওয়ানডে কেরিয়ারের ৩২তম অর্ধশতক পূর্ণ করেন। যদিও তিনি সেই ইফতিখারের বলেই আউট হন। উইলিয়ামস ১০টি বাউন্ডারি এবং ১টি ছক্কার সাহায্যে ৭০ বলে ৬৫ রান করেছিলেন। তিনি আউট হওয়ার সঙ্গে পুরো দলটি ২০৬ রানে গুটিয়ে যায়। পাকিস্তানের হয়ে ইফতিখার আহমেদ ৫ উইকেট নেন। মহম্মদ মুসা পেয়েছেন ২ উইকেট। হারিস রউফ, ফাহিম আশরাফ, ইমাদ ওয়াসিম ১টি করে উইকেট পেয়েছেন।

আরও পড়ুন: ভারতীয় মহিলা ফুটবলের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী আশালতা দেবী

২০৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান দল ভালো শুরু করে। ইমাম-উল-হক এবং আবিদ আলি প্রথম উইকেটে ৬৮ রানের জুটি গড়েন। এই অংশীদারিত্ব ভেঙে দেন চিসোরো। ২২ রানের ব্যক্তিগত স্কোরে আবিদ আরউইনের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলয়নে ফেরেন। এরপর ইমাম তখন বাবর আজমের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৩২ রানের জুটি গড়েন। ইমাম এক রান করে ফিফটি করতে মিস করেন। চিসোরো তাঁকে ৪৯ রানে আউট করেন। হায়দার আলি (২৯) ও মহাম্মদ রিজওয়ান (১) বিশেষ কিছু করতে পারেননি।

আরও পড়ুন: আই লিগ: রিয়েল কাশ্মীরে আফগান জাতীয় দলের ফুটবলার ফখরুদ্দিন আমিরি

ইতিমধ্যে বাবর আজম তাঁর ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৬তম রান করেন এবং ইফতিখারের সঙ্গে জুটি বেঁধে ৩৫.২ ওভারে ২০৮ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। বাবর ৭৪ বলে ৭৭ রানে অপরাজিত থাকেন। তাঁর ইনিংসটি সাজানো ছিল সাতটি চার ও ২টি ছক্কায়। একইসঙ্গে ইফতিখার ২৪ বলে ১৬ রানে অপরাজিত রয়ে যান। জিম্বাবোয়ের হয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন চিসোরো। একইসঙ্গে উইলিয়ামস ও রাজা পান ১টি করে উইকেট।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *