আকস্মিক পিতৃশোক সামলে কলকাতা লিগে মাঠে নামলেন পিয়ারলেসের ডিফেন্ডার আকাশ মুখার্জি

সায়ন ঘোষ

কলকাতা লিগের খেলায় টালিগঞ্জ অগ্রগামীর বিরুদ্ধে পিয়ারলেস জিতল ৬-২ গোলে। প্রথমার্ধে টালিগঞ্জ অগ্রগামীর বিরুদ্ধে পিয়ারলেস ৫-০ গোলে এগিয়ে ছিল। এদিন হ্যাটট্রিক করেছেন পিয়ারলেসের নির্ভরযোগ্য বিদেশি তারকা আনসুমানা ক্রোমা। আজকের ম্যাচে কলকাতা ময়দান একটি অভিনব ঘটনার সাক্ষী হয়ে রইল। সে প্রসঙ্গে যাওয়ার আগে বলে রাখা, ভালো এদিন পিয়ারলেসের প্রথম গোলটি করেন পঙ্কজ মৌলা। অপর গোলটি করেছিলেন রোমারিক। দ্বিতীয়ার্ধে আরও একটি গোল করে পিয়ারলেস। গোলদাতা শ্যাম। তবে টালিগঞ্জের হয়ে দ্বিতীয়ার্ধে দু’টি গোল শোধ করেন ক্রিস্টোফার চিজোবা।

আরও পড়ুন: ভবানী রায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ মোহনবাগানের

তবে যে প্রসঙ্গ দিয়ে এই লেখার সূত্রপাত, পিয়ারলেস দলের নির্ভরযোগ্য ফুটবলার আকাশ মুখার্জির বাবা আজ প্রয়াত হয়েছেন। বাবা মারা যাওয়া সত্ত্বেও আকাশ মুখার্জি আজকে পিয়ারলেস এর হয়ে মাঠে নামেন এবং নিজে দলের হয়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সও করেছেন। আকাশ মুখার্জির বাবার দেহ তখনও সৎকার করা হয়নি। ম্যাচটি খেলে আকাশ মুখার্জি তাঁর পিতার দেহ সৎকার করবেন। গতবারের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পিয়ারলেস এবারেও খেতাব ধরে রাখতে মরিয়া। তাই পিয়ারলেসের খেলোয়াড়রা নিজেদেরকে উজাড় করে দিচ্ছেন। তার বড় প্রমাণ পিতার প্রয়াণেরপরেও দেহ সৎকার না করে আকাশ মুখার্জির আজকের ম্যাচে খেলতে নামা। কলকাতা ময়দানের দীর্ঘ ইতিহাসে এমন ঘটনা বিরল, তাতে সন্দেহ নেই।

এদিন দ্বিতীয়ার্ধে মাথায় চোট পেয়ে কিছুক্ষণের জন্য মাঠের বাইরে চলে যান আকাশ। মাথায় আটটি সেলাই নিয়ে পুনরায় মাঠে নেমে যান তিনি। তবে দল বড় ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় কিছুক্ষণ পরে তাঁকে মাঠ থেকে তুলে নেন পিয়ারলেস কোচ। এদিন তাঁকেই বিচারকদের তরফে ইমার্জিং ফুটবলারের পুরস্কার তুলে দেওয়া হল।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

One comment

  • সৌম্য বসু

    আর আবাস বাবু অপেশাদার লিগ বলে দিলেন। কলকাতা ময়দানের প্রাক্তনী হিসেবে জানি কত এরকম গল্প লেখা আছে যা এনাদের জানার কথাও নয় আর কেউ বলবেও না। ধন্যবাদ তোমাদের। তোমরা তুলে ধরলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *