পর্ন সাইট র‍্যাকেট, পুলিশের জালে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়র

Mysepik Webdesk: অবিকল মিল রয়েছে নেটফ্লিক্স কিংবা অ্যামাজনের সঙ্গে। মাসিক কিংবা বার্ষিক ভিত্তিতে সাবস্ক্রাইব করার শর্তে রয়েছে পর্নোগ্রাফির মুক্ত দরজা। মধ্যপ্রদেশে পর্নোগ্রাফির এই রকমই ওটিটি প্ল্যাটফর্ম খুলে ফেলেছিল কয়েকজন ব্যক্তি। সবরকমের প্রযুক্তিতে সাহায্য করত এক পাকিস্তানি নাগরিক। ঘটনার তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে মধ্যপ্রদেশ পুলিশ। এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকায় এপর্যন্ত মোট ছ’জনকে গ্রেফতার করেছে মধ্যপ্রদেশের পুলিশ। তাদের মধ্যে একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়র।

আরও পড়ুন: হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল দোতলা শপিং কমপ্লেস, মৃত ১

এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকায় মঙ্গলবার গোয়ালিয়র থেকে দীপক সাইনি (৩০) এবং মোরেলা জেলার কেশব সিংকে (২৭) গ্রেফতার করে পুলিশ। এর আগে গত ১০ অগস্ট ওই একই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকায় ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ধৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৬৬ এবং ৬৭ নম্বর ধারায় মামলা রুজু করেছে।

আরও পড়ুন: ফাইনাল বর্ষের পরীক্ষা নিতে হবে, ইউজিসি-র নির্দেশিকাকে সিলমোহর সুপ্রিম কোর্টের

মধ্যপ্রদেশ পুলিশ জানিয়েছে, তাদের এই কাণ্ডকারখানার জাল সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানেও বিস্তার লাভ করেছিল। ওই প্ল্যাটফর্মটি বানানোর মূল মাথা ছিল পাকিস্তানের নাগরিক হুসেন আলি। পর্ন ছবি বানানোর জন্য তারা একেকটি ডিস্ট্রিবিউটারদের প্রায় ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত দিত। জানা গেছে, ওই প্লাটফর্মটি সাবস্ক্রাইব করতে ন্যূনতম খরচ হত ২৪৯ টাকা। টাকার অঙ্ক বাড়লে বাড়ত সুবস্ক্রিপশনের মেয়াদও। ইন্দোরের এক মডেল ঘটনাটির বিষয়ে সাইবার ক্রাইম সেলে অভিযোগ জানালে প্রথম বিষয়টি পুলিশের নজরে আসে। তারপরেই ফাঁদ পেতে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *