শান্তিপুর বিধানসভার বিধায়কের বিরুদ্ধে শহরের একাধিক জায়গায় পোস্টার

Arindam

Mysepik Webdesk: শান্তিপুর বিধানসভার বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য্য। কিছুদিন আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ফলে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে লোকালয় সর্বত্রই দলত্যাগের বিরুদ্ধে কানাঘুষা শোনা যাচ্ছে। দিল্লিতে কৈলাশ বিজয় বর্গী হাত থেকে পতাকা নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুল খুলতে চলেছে: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

এদিকে তৃণমূলে বিধায়ক থাকাকালীন বিজেপির এক কর্মী খুনের সরাসরি অভিযোগ ওঠেছিল তার বিরুদ্ধে। অরিন্দমের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরের দিনই ওই পরিবারের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ধিক্কার জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে। শান্তিপুরের বেশকিছু বিজেপি কর্মীকেও ধিক্কার জানাতে দেখা যায়। তবে সংবাদমাধ্যমে স্থানীয় জেলা বা রাজ্যের বিজেপির পদাধিকারদের কাউকে মুখ খুলতে দেখা যায়নি।

এদিকে গতকাল একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য্যকে বিজেপি নেতা হিসেবে যোগদান করতে দেখা যায়। এরপর গতকাল রাত থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায়, বাম কংগ্রেস জোট, এবং তৃণমূলের কর্মীরা বিভিন্ন ব্যক্তিগত প্রোফাইল থেকে ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

আরও পড়ুন: স্বনির্ভর গোষ্ঠী প্রকল্পের মাধ্যমে অনেক মহিলাই কাজের সুযোগ পেয়েছেন: সাধন পান্ডে

আজ সকালে শান্তিপুর শহরের একাধিক জায়গায় বিধায়কের বিরুদ্ধে রঙিন পোস্টার দেখা যায়। শান্তিপুর শহরের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের, রামনগর চর, শশী খাঁ পোল, ১১ নম্বর ওয়ার্ডের ডাকঘর, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বড়বাজার, বেলঘড়িয়া ২ নম্বর অঞ্চলের ফুলিয়া পাড়া, হরিপুর অঞ্চলের নৃসিংহ পুর এ রকমই শান্তিপুর শহর ও গ্রামের একাধিক জায়গায় পোস্টার দেখা গেছে। ওই পোস্টারে লেখা আছে “দম বন্ধ হওয়া শান্তিপুর আজ অভিশাপমুক্ত, অশুভ্ শক্তির বিনাশ, তাই শান্তিপুরের ঘরে ঘরে নতুন করে আজ বাঁধভাঙ্গা স্বাধীনতার আনন্দ।” অন্য এক পোস্টারে লেখা আছে, ”পাপটা বিদায় হয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেস জিতে গেছে, বাকি শুধু আবির খেলা, অরিন্দম তুমি শান্তিপুর ছেড়ে পালা”

এ বিষয়ে বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য্য যা বললেন . . .

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *