আদিবাসী মহিলাকে গণধর্ষণে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ সিউড়িতে

সিউড়ি, ২৪ আগস্ট: বীরভূমের মহম্মদবাজার থানা এলাকার আদিবাসী মহিলাকে গণধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে সোমবার বীরভূমের জেলা পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে হাতে প্লাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন এআইডিএসও, আইএএমএসএস সংগঠন। সালিশি সভার নিদান নিয়েও প্রশ্নে তোলা হয় সংগঠনের তরফে। মহম্মদবাজার থানা এলাকার এক আদিবাসী গৃহবধূ, তিন সন্তানের মা বিধবা ওই মহিলা মহম্মদবাজার থানায় অভিযোগ করেন, পাঁচ জন মিলে তাঁকে ধর্ষণ করেছে। ওই ঘটনার খবর জানাজানি হতেই প্রশাসনিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। যদিও ওই মহিলার প্রতিবেশীরা জানান, মহিলার সঙ্গে ভিন্ন সম্প্রদায়ের এক যুবকের প্রণয়ঘটিত সম্পর্ক ছিল। জঙ্গলের মধ্যে তাঁদের দু’জনকে আপত্তিজনক অবস্থায় ধরার পরেই সালিশি সভায় বিচার হয়।

আরও পড়ুন: বাড়ি বাড়ি জনসংযোগ তৈরি করে পার্টি তহবিল সংগ্রহ সিপিআইএমের

যদিও ওই মহিলা ৫ জনের বিরুদ্ধে মহম্মদবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন যে, তাঁকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে। ওই ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশ প্রথমে দু’জন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। পরে, রবিবার গভীর রাতে মহম্মদবাজার থানা এলাকার এক জঙ্গলে হানা দিয়ে বাকি তিনজনকেও গ্রেপ্তার করা হয়। এদিকে ওই মহিলার মেডিক্যাল টেস্ট করিয়েছে পুলিশ। রবিবার রাতে গ্রেপ্তার হওয়া তিন অভিযুক্তকে সোমবার সিউড়ি আদালতে তোলা হয়। আদিবাসী সংগঠনের নেতা সুনীল সোরেন বলেন যে, আমরা চাই নিরপেক্ষ তদন্ত হোক।

আরও পড়ুন: খাস কলকাতার বুকে চলন্ত ক্যাবে মহিলার শ্লীলতাহানি

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *