প্রকাশ্যে বোরকা পরা নিষিদ্ধ হল শ্রীলঙ্কায়

Mysepik Webdesk: জাতীয় সুরক্ষার উল্লেখ করে শ্রীলঙ্কায় প্রকাশ্যে বোরকা পরার ক্ষেত্রে জারি হয়ে গেল নিষেধাজ্ঞা। শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভা এই নির্দেশিকা জারি করছে। গত বছর মার্চ মাসে দেশটিতে জননিরাপত্তা মন্ত্রী সারথ বীরাশেকার একটি বিলে সই করেছিলেন যেখানে বাসিন্দাদের শরীর ও মুখ ঢাকা বেশ কয়েক ধরনের পোশাকগুলি নিষিদ্ধ করার জন্য মন্ত্রিসভায় অনুমোদন চাওয়া হয়েছিল। সেই অনুযায়ী, এবার ওই দেশে প্রকাশ্যে সমস্ত রকমের মুখ ঢাকা পোশাক নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যদিও বিষয়টি এখনও পর্যন্ত আইনে রূপান্তরিত হয়নি।

আরও পড়ুন: ভ্যাকসিন-এর পর এবার অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ বাজারে নিয়ে আসতে চলেছে ফাইজার

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় বোরকা পরিহিত এক মুসলিম মহিলা (ফাইল: এরাঙ্গা জয়াবর্ধনা / এপি)

মঙ্গলবার মন্ত্রী পরিষদের মুখপাত্র ও তথ্যমন্ত্রী কেহেলিয়া রামবুকভেলা সংবাদমাধ্যমকে জানান, “ইস্টার রবিবারে হোটেল এবং গীর্জায় সমন্বিত সন্ত্রাসী হামলার দুই বছর পরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। জাতীয় সুরক্ষার জন্য শ্রীলঙ্কায় সমস্ত ধরনের মুখ ঢাকা পোশাক নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হল।” যদিও সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় তিনি ‘বোরকা’ শব্দটি উল্লেখ করেননি। তবে করোনা সংক্রমণ রুখতে আপাতত মাস্ক ব্যবহার করার ওপর কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি। প্রসঙ্গত, শ্রীলঙ্কায় প্রায় ২ কোটি ২০ লক্ষ মানুষের মধ্যে ৯ শতাংশ মুসলিম। আর বৌদ্ধরা ৭০ শতাংশ। তবে জাতিগত সংখ্যালঘু তামিলরা, যারা মূলত হিন্দু, যা প্রায় ১২ শতাংশ এবং খ্রিস্টান সেখানে জনসংখ্যার বিচারে ৭ শতাংশ।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *