পুজোর মুখেই বন্যার আশঙ্কা

Weather

Mysepik Webdesk: গুলাবের লেজ ধরে উৎপত্তি হচ্ছে নতুন এই ঘূর্ণিঝড়ের। এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম শাহিন। এর প্রভাব পড়বে মূলত পশ্চিম উপকূলে। তবে এর জেরে সৃষ্টি হওয়া নিম্নচাপ ও ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে ভাসতে চলেছে উত্তরবঙ্গ, সিকিম, ঝাড়খণ্ডও বিহার। যে কারণে আজ, শুক্রবার থেকে উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। ভারী বৃষ্টি হবে উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। অতি ভারী বৃষ্টি হবে কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারে।

আরও পড়ুন: দুর্গাপুজো থেকে লক্ষ্মীপুজো পর্যন্ত শিথিল হল করোনা বিধিনিষেধ

পুজোর মুখেই বন্যার আশঙ্কা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, নিম্নচাপ এখন ঝাড়খণ্ড ও বিহারের উপরে রয়েছে। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গে পশ্চিমের জেলাগুলোর কিছু কিছু জায়গায় বৃহস্পতিবার বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হয়েছে।

আবহাওয়াবিদদের আশ্বাস, শুক্রবার থেকে দক্ষিণবঙ্গে আবহাওয়ার উন্নতি হবে। কিন্তু কাল থেকেই বৃষ্টি বাড়বে উত্তরবঙ্গে। ভারী বৃষ্টি হবে দার্জিলিং, কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি, মালদা ও দুই দিনাজপুরে। এই জেলাগুলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে, উত্তরবঙ্গের তিন জেলার জন্য কমলা সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। রবিবার থেকে কোচবিহার ও আলিপুর দুয়ারে প্রবল বর্ষণের সতর্কতা জারি রয়েছে।

আরও পড়ুন: কল্যাণ চৌবের গাড়িতে হামলা, আটক সহায়ক

ঝডা়খণ্ডে প্রবল বৃষ্টির জেরে ডিভিসি ফের জল ছাড়ার পদক্ষেপ নেয়। ফল দামোদর অববিবাহিকার নদী সংলগ্ন এলাকায় প্লাবনের আশঙ্কা রয়েছে। যার ফলে দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চল ভেসে যেতে পারে। হুগলি, বীরভূম, বর্ধমানে একটি বড় এলাকা জুড়ে বর্ষণ হয়ে প্রবল প্লাবনের সম্ভাবনা রয়েছে। উল্লেখ্য, বাঁকুড়া, বীরভূম, মুর্শিদাবাদেও রয়েছে বর্ষণের আশঙ্কা। শনিবার থেকে বীরভূম মুর্শিদাবাদে বর্ষণের আশঙ্কা রয়েছে। 

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *