আকাশ থেকে বিরল উল্কাবৃষ্টি, রাতারাতি বড়োলোক গ্রামের বাসিন্দারা

Mysepik Webdesk: ব্রাজিলের স্যান্টা ফিলোমেনা গ্রামে শয়ে শয়ে উল্কাপিণ্ডের টুকরো পড়েছে। আর তাতেই গ্রামবাসীরা রাতারাতি বড়লোক হয়ে গেল। জানা গেছে, ওই পাথরের টুকরোগুলির বাজারদর অনেক। কয়েক লক্ষ টাকা দাম সেগুলির। সবথেকে বড় টুকরোটির দাম ১৯ লক্ষ টাকা বলে জানা গেছে। ওই গ্রামে গত ১৯ আগস্ট উল্কাবৃষ্টি হয়। গ্রামবাসীদের মধ্যে প্রায় সবাই সেই দুর্লভ পাথরের টুকরোগুলোকে সংগ্রহ করে রেখে দেয়। বৈজ্ঞানিকরা গ্রামবাসীদের কাছ থেকে ওই পাথর গুলো চাইতে গেলে গ্রামবাসীরা পাথরের বদলে অর্থ দাবি করে। একেকটি টুকরো লক্ষাধিক অর্থের বিনিময়ে বৈজ্ঞানিকরা কিনে নেয়।

আরও পড়ুন: বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের দূরতম নক্ষত্র ছায়াপথের হদিস দিলেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরা

জানা গেছে, সবথেকে বড় টুকরোটির ওজন হয়েছে ৪০ কেজি যা ২৬ হাজার ডলারে (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১৯ লক্ষ টাকা) বিক্রি হয়েছে। ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় ২০০ এর বেশি টুকরো পড়েছিল। ২০ বছর বয়সী ছাত্র অ্যাডিমার ডি কস্টা রড্রিগেজ জানায়, সেদিন রাতে গোটা আকাশ ধুয়োয় ভরে গিয়েছিল। এরপর আমি জানতে পারি যে, আকাশ থেকে উল্কাপিণ্ড পড়ছে।

আরও পড়ুন: ওজন গ্যাসে ধ্বংস হবে করোনাভাইরাস, দাবি জাপানের বিজ্ঞানীদের

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই উল্কাপিণ্ডগুলি অন্তত ৪.৬ বিলিয়ন বছরের পুরনো। সাও পাওলো ইউনিভার্সিটিতে কেমিস্ট্রির ইনস্টিটিউট এর গ্যাব্রিয়েল সিলভা বলেন, এই উল্কাপিণ্ড গুলো প্রথম খনিজ পদার্থ যেটি দিয়ে সোলার সিস্টেম তৈরি হয়েছিল। রড্রিগেজ জানায়, এলাকার ৯০ শতাংশ মানুষ কৃষিকাজের উপর নির্ভরশীল। এখানকার মানুষ অনেক গরীব। তাই ভগবান আমাদের জন্য পয়সার বৃষ্টি করিয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *