‘রিমুভ এটিকে’: মোহনবাগান সদস্য ও সমর্থকদের জোরালো দাবি প্রেস ক্লাবে

সায়ন ঘোষ

এটিকের সঙ্গে মোহনবাগানের মার্জারের আগে থেকেই এ নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত ঘটেছিল। মার্জার পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন ঘটনা পরম্পরায়  মোহনবাগান সমর্থকদের ‘রিমুভ এটিকে’ আন্দোলন  সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ক্রমশ পথে নেমে এসেছে। এদিন প্রেস ক্লাবে কিছু মোহনবাগান সদস্য-সমর্থক  ‘মোহনবাগান সাপোর্টার্স অ্যান্ড মেম্বারস’-এর ব্যানারে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়ে দিলেন তাঁরা চাইছেন এটিকে সঙ্গে মোহনবাগানের মার্জারটিকে বাতিল করা হোক। প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, চাপা ক্ষোভ আগে থেকে থাকলেও আইএস‌এলের থার্ড কিট বিতর্ক নিয়ে প্রথম বিতর্ক শুরু হয়। তারপর এটিকে মোহনবাগান ওয়েবসাইটে মোহনবাগান কিংবদন্তি গোষ্ঠ পালের সঙ্গে এটিকের হয়ে খেলা বিদেশি ফিকরুর ছবি একসঙ্গে রাখা নিয়ে আরও বিতর্ক জোরালো হয়। ইতিমধ্যে ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে রিমুভ এটিকে স্লোগান দিয়ে গত ২৯ জুলাই বিক্ষোভ জানায় কিছু মোহন সমর্থক।

আরও পড়ন: বিস্ফোরক সুব্রত: কেউ টাকা দিয়েছে বলেই মোহনবাগান সদস্য সমর্থকরা তার কথা শুনে চলতে বাধ্য নন

সম্প্রতি এটিকে মোহনবাগানের ডিরেক্টর উৎসব পারেখের একটি বিতর্কিত মন্তব্য বিক্ষোভকে কার্যত দাবানলে পরিণত করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় রিমুভ এটিকে ক্যাম্পেইনিং আরও গতি পায়। তারপর আজকের সাংবাদিক সম্মেলন। প্রেস ক্লাবে এদিন সন্ধ্যায় সুমিত ঘোষ, অশোক দে, ঋষভ পাল, ইন্দ্রনীল রায়ের মতো মোহনবাগান সদস্য সমর্থকরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানিয়ে দেন, তাঁদের মূল দাবি অবিলম্বে এটিকের সঙ্গে মোহনবাগানকে ডিমার্জ করতে হবে। যদি তিন মাসের মধ্যে এই ডিমার্জ না করা হয়, তাহলে এর দায় নিয়ে মোহনবাগান ক্লাব কর্তাদের পদত্যাগ করতে হবে। সেইসঙ্গে এদিন মোহনবাগান সর্মথকরা আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটবেন বলে জানিয়ে দেন। তাঁরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এটিকে মোহনবাগান ম্যানেজমেন্ট নানাভাবে মোহনবাগানের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে কলঙ্কিত করবার চেষ্টা করছে।

আরও পুন: ১৯৬২-র ৪ সেপ্টেম্বর: এশিয়ান গেমস ফুটবলে সোনা জয়ের রূপকথা পা দিল হীরক জয়ন্তীতে

এই সাংবাদিক সম্মেলন স্থলে বিভিন্ন মোহনবাগান ফ্যান্স ক্লাব থেকে মোহনবাগান সমর্থকরা হাজির হন এবং প্রেস ক্লাবের সামনে কখনও গান গেয়ে বা কখনও রং মশাল জ্বালিয়ে তাঁরা  বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে। এটিকে মোহনবাগান ম্যানেজমেন্টের তরফ থেকে অবশ্য  এই সাংবাদিক সম্মেলনের বিষয়ে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *