করোনা যুদ্ধে হেরে গেলেন প্রখ্যাত সেতারবাদক দেবু চৌধুরি এবং অভিনেতা বিক্রমজিৎ কানওয়ারপাল

Mysepik Webdesk: প্রখ্যাত সেতারবাদক ও পদ্মভূষণ সম্মানপ্রাপ্ত পণ্ডিত দেবব্রত চৌধুরি, ওরফে দেবু চৌধুরি শনিবার সকালে প্রয়াত হয়েছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। করোনা পজিটিভ হওয়ার পরে বুধবার রাত থেকে তিনি দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। লকডাউনের কারণে তাঁকে পুলিশের সহায়তায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। অন্যদিকে, অভিনেতা বিক্রমজিৎ কানওয়ারপালও করোনা যুদ্ধে হেরে গেছেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৫২ বছর।

আরও পড়ুন: করোনার দুর্বার গতি, কোয়ারেন্টাইন সেন্টার গড়তে ১ কোটি টাকা দিলেন অজয় দেবগন

দেবু চৌধুরির পুত্র প্রতীক চৌধুরি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর বাবার মৃত্যুর খবর দিয়েছেন। তিনি জানান, শুক্রবার গভীর রাতে হার্ট অ্যাটাক হয় দেবব্রত চৌধুরির। শিল্প ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ১৯৯২ সালে তিনি ভারত সরকার কর্তৃক পদ্মভূষণে ভূষিত হন। তিনি সেনিয়া সংগীত ঘরানার পাঁচু গোপাল দত্ত এবং সংগীত আচার্য ওস্তাদ মোশতাক আলি খানের কাছ থেকে সংগীত অধ্যয়ন করেছিলেন।

আরও পড়ুন: করোনা যোদ্ধাদের হাতে খাবার তুলে দিচ্ছেন ‘ভাইজান’

একইসঙ্গে চিত্রনায়ক অশোক পণ্ডিত অভিনেতা বিক্রমজিতের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন যে, ‘‘আজ সকালে করোনার কারণে অভিনেতা মেজর বিক্রমজিৎ কানওয়ারপালের মৃত্যু সম্পর্কে শুনে দুঃখ হয়েছে। তিনি ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা অফিসার, যিনি বহু চলচ্চিত্র এবং টিভি সিরিয়ালে কাজ করেছিলেন।”

২০০৯ সালে ভারতীয় সেনা থেকে অবসর নেওয়ার পরে বিক্রমজিৎ তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেছিলেন। তিনি ‘পেজ-৩’, ‘রকেট সিং: সেলসম্যান অফ দ্য ইয়ার’, ‘রিজার্ভেশন’, ‘মার্ডার -২’, ‘২ স্টেটস’ এবং ‘দ্য গাজি অ্যাটাকে’র মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। উল্লেখ্য যে, শুক্রবার দেশে রেকর্ড ৪ লক্ষ ১ হাজার ৯১১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এটি বিশ্বের যেকোনও দেশে সবচেয়ে বেশি এক দিনে সংক্রামিতের সংখ্যা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *