রিপোর্ট নেগেটিভ, জার্মানি থেকে দেশে ফিরলেন ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকারা

Mysepik Webdesk: জার্মানিতে আটকে থাকা ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় মঙ্গলবার কোভিড টেস্টের পর রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পরে দেশে ফিরেছেন। ১ নভেম্বর জার্মান স্বাস্থ্য বিভাগে ভারতীয় দল দ্বিতীয় টেস্ট করিয়েছিল। লক্ষ্যা সেন সহ তিন শাটলারের সমন্বয়ে গঠিত ছিল এই দল। সেখানে লক্ষ্যা সেনের বাবা এবং কোচ ডি কে সেন করোনা আক্রান্ত হন। এর পরে সরলারলাক্স ওপেন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেন লক্ষ্যা।

আরও পড়ুন­: করোনাকালে প্রথমবার প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশ পৌঁছল নেপাল

ডি কে সেনের সংস্পর্শে আসার কারণে বিশ্বের প্রাক্তন ১৩ নম্বর অজয় ​​জয়রাম এবং ২০১৮-র বিজয়ী শুভঙ্কর দে-ও সুপার ১০০ টুর্নামেন্ট থেকে সরে আসতে বাধ্য হন। এরপর তাঁরা নিজেদের পৃথক অবস্থাতেও রেখেছিলেন। লক্ষ্যা, জয়রাম, শুভঙ্কর এবং ফিজিও অভিষেক ওয়াগকে টুর্নামেন্টের আগে কোভিড নেগেটিভ বলে প্রমাণিত হয়েছিলেন। লক্ষ্যা, তাঁর বাবা এবং ফিজিও বেঙ্গালুরু এসেছিলেন এবং শুভঙ্কর ও জয়রাম ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে দিল্লির ফ্লাইট ধরেন।

আরও পড়ুন­: জল্পনা কি সত্যি! মহামেডান স্পোর্টিংয়ে এবার বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক

ডি কে সেন পিটিআইকে বলেছেন, ”আমরা ভোর পাঁচটায় বেঙ্গালুরুতে আমাদের বাড়িতে পৌঁছেছি। আমরা সবাই পুরোপুরি সুস্থ রয়েছি। আমার টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরে আমরা পৃথক অবস্থায় ছিলাম। জার্মান কর্তৃপক্ষ ১ নভেম্বর আমাদের পাঁচজনের দ্বিতীয় টেস্ট করেছিল এবং ভাগ্যক্রমে ফলাফলটি নেগেটভ আসে। আমরা তৎক্ষণাৎ বাড়ি ফিরে এসেছি।” ডি কে সেনকে ৬ নভেম্বর অবধি বিচ্ছিন্ন থাকতে বলা হয়েছে। বাকিদের ৯ নভেম্বর অবধি আলাদা করে থাকার কথা বলা হয়েছে।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *