তিন লক্ষ দেশলাই কাঠি দিয়ে তাজমহল বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিলেন কৃষ্ণনগরের সহেলি পাল, নাম উঠতে চলেছে ‘গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড’ -এ

নদিয়া, ৪ অক্টোবর: বাবা-মায়ের শিল্পচেতনাকে সেই ছোটবেলা থেকেই উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন নদিয়ার কৃষ্ণনগরের সহেলি পাল। বড় হয়ে নিজেই দেশলাই এর কাঠি দিয়ে তাজমহল বানিয়ে চমকে দিলেন তিনি। মাত্র ২২ বছরের এই শিল্পী কৃষ্ণনগরের বিখ্যাত রাষ্ট্রপতি পুরস্কার প্রাপ্ত মৃৎশিল্পী সুবীর পালের কন্যা। স্নাতকোত্তর স্তরে ইংরেজি নিয়ে পড়াশোনা করা নদিয়া জেলার কৃষ্ণনগরের সহেলী লকডাউনের সময় থেকেই আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের মতোই গৃহবন্দী ছিলেন। আর সেই সময়েই তিনি নিজের সৃজনশীলতার বহিঃপ্রকাশ ঘটানোর পরিকল্পনাটি সেরে ফেলেন ।

আরও পড়ুন: ট্রেনে করেই শিলিগুড়ি থেকে এবার সরাসরি সিকিম, অপেক্ষা মাত্র তিন বছরের

তিনি সেই সময় থেকেই শুরু করে দেন দেশলাই কাঠি দিয়ে পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্য তাজমহলের অবয়ব তৈরির কাজ। দুমাস নিরলস পরিশ্রমের পর প্রায় ৩ লক্ষ দেশলাই এর কাঠি ও আঠার মাধ্যমে একটি ৪ ফুট বাই ৬ ফুটের তাজমহলের অবয়ব তিনি তৈরি করে ফেলেছেন। তাঁর এই সৃষ্টি এতটাই সুন্দর হয়েছে যে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড -এর জন্য আবেদন করা হবে বলে জানালেন সহেলি।

আরও পড়ুন: নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু এবার এসেছিলেন এই বাড়ির দুর্গাপূজায়, টাকি’র জমিদারবাড়ির পুজো এবছর ৩৫১ বছরে পা দিল

তাঁর পরিবারে মাটির কাজ প্রাধান্য পেলেও নতুন কিছু করার পরিকল্পনা তাঁর মনে বরাবরই ছিল। সহেলী জানান, মানসিকভাবে তাঁকে এই কাজ করতে উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন তাঁর বাবা-মা। তিনি খুবই আনন্দিত। মাটির কাজ করতেও তাঁর খুব ভালো লাগে। তবে সৃজনশীল কাজ করতেই তিনি ভালোবাসেন বলেই তাঁর এই উদ্যোগ। সহেলীর বাবা সুবীর পাল জানান , তাঁদের গোটা পরিবার মূলত মৃৎশিল্পের সঙ্গে জড়িত। তবুও মৃৎশিল্পের পাশাপাশি তাঁর মেয়ে দারুন একটি নতুন জিনিস তৈরি করেছেন। মেয়ের এই প্রতিভা দেখে তিনি খুবই আনন্দিত। .

আরও পড়ুন: দলিত নির্যাতনের প্রতিবাদে কলকাতার রাজপথে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *