Latest News

Popular Posts

ভারতীয় মহিলা হকি দলের কোচ মারিন যেন ‘চাক দে ইন্ডিয়া’র কবীর খান

ভারতীয় মহিলা হকি দলের কোচ মারিন যেন ‘চাক দে ইন্ডিয়া’র কবীর খান

Mysepik Webdesk: ভারতীয় মহিলা হকি দল অলিম্পিকের সেমিফাইনালে উঠে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। কোয়ার্টার ফাইনালে ভারত তিনবারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে। আজকের ম্যাচের আগে অস্ট্রেলিয়াই ছিল ফেভারিট। কেউই ভাবেনি যে, ভারত আজকের ম্যাচে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দিতে পারবে। অস্ট্রেলিয়ান দলের সাম্প্রতিক রেকর্ড এবং এই অলিম্পিকে পুল স্টেজের ম্যাচে তাদের পারফরম্যান্স দেখেই অস্ট্রেলিয়াকে ফেভারিট ধরা হয়েছিল। কিন্তু ম্যাচ শুরু হতেই ভারতীয় মেয়েরা উজ্জীবিত হকি খেলতে থাকেন। দ্বিতীয় কোয়ার্টার পর্যন্ত ভারত কেবল ১-০ গোলে এগিয়েই ছিল তা নয়, বল পজিশনও ৫১ শতাংশ ছিল রানি রামপালদের।

আরও পড়ুন: অলিম্পিকের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের জন্য শেষ চারে ভারতীয় মহিলা হকি দল

উল্লেখ্য যে, এই ভারতীয় দলের মানসিকতায় যথেষ্ট ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে। ভারতীয় কোচ সায়োর্ড মারিন এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন। ‘চাক দে ইন্ডিয়া’ সিনেমার চরিত্র কবীর খানের মতো তিনি ম্যাচের একদিন আগে ভারতীয় দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলে তাঁদের উজ্জীবিত করেছিলেন। সায়োর্ড মারিন ভারতীয় দলের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, “অস্ট্রেলিয়া দল কতটা শক্তিশালী, সেই বিষয়ে চিন্তা কোরো না। অস্ট্রেলিয়ার শক্তি এবং দুর্বলতা দিকে না তাকিয়ে তার পরিবর্তে তোমরা কী করতে পারো, তা নিয়ে চিন্তা করো। তোমরা আয়ারল্যান্ডকে হারিয়েছ। যারা গত বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট। তারপর দক্ষিণ আফ্রিকাকেও হারিয়েছ। মোমেন্টাম আমাদের দলের সঙ্গেই রয়েছে। অস্ট্রেলিয়াই চাপে থাকবে।”

আরও পড়ুন: চার দশক পরে পুরুষ হকিতে অলিম্পিকে সেমিফাইনালে ভারত

দেশের মহিলা হকি নিয়ে সবচেয়ে সফল ছবি ‘চাক দে! ইন্ডিয়া’ দেখেছেন নেদারল্যান্ডসে জন্মানো ভারতীয় কোচ মারিন। তিনি দু’দিন আগে বলেছিলেন, “এই দলে যোগ দেওয়ার পর থেকে আমি আমার অভিজ্ঞতা ধারাবাহিকভাবে লিখে রাখছি। আমি আশাবাদী যে, আমারও ‘চাক দে’ মুহূর্ত আসবে এবং আমাদের দল ঐতিহাসিক সাফল্য অর্জন করবে।”

আরও পড়ুন: ব্রোঞ্জ সিন্ধুর, অলিম্পিকে ইতিহাস হায়দরাবাদি কন্যার

এমনই মুহূর্ত এসেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয়ের মাধ্যমে। অস্ট্রেলিয়ার মহিলা দলের ডিফেন্স এই অলিম্পিকে সবচেয়ে শক্তিশালী। পুল স্টেজের পাঁচ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া মাত্র একটি গোল হজম করেছিল। অন্যদিকে, হলুদ বাহিনীর মেয়েরা ১৩টি গোল করেছিল। অন্যদিকে, ভারতীয় দল পুল স্টেজে ১৪টি গোল হজম করেছিল এবং মাত্র সাতটি গোল করতে সক্ষম হয়েছিল। আজকের জয়ের পর ভারতীয় মহিলা হকি দল সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে ৪ আগস্ট।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *