আতা ফলের কিছু উপকারিতা

Sugar apple

Mysepik Webdesk: সুস্বাদু ফল হিসেবে আতা সুপরিচিত। মিষ্টি স্বাদের মুখরোচক ফলটি শুধুমাত্র স্বাদের দিক থেকে নয়, স্বাস্থ্যের জন্য এটি দারুণ উপকারী ফল। প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম ভিটামিন সির মতো নানা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে এতে। এ ছাড়া কোষ্ঠ পরিষ্কার, অরুচি দূর করা, ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ানো ও দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখার প্রয়োজনে আতা খাওয়া যায়। জেনে নিন আতা ফলের কিছু উপকারিতা।

আরও পড়ুন: বাবা নয়, মায়ের জন্যই বুদ্ধি বাড়ে সন্তানের, সমীক্ষায় চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট

বিশেষজ্ঞরা বলেন, ভিটামিন ও মিনারেলসমৃদ্ধ এ ফল শরীরের জন্য খুব কাজের। প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ থাকায় আতা ফল ত্বক, চুল এবং চোখের জন্য উপকারী। চোখের কর্নিয়া ও রেটিনাকে সুরক্ষিত রাখে। এটি ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে, তারুণ্য ধরে রাখে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দিতে পারে।

হাঁপানি রোগীদের জন্য আতা ফল খুব উপকারী। আতার মধ্যে আছে ভিটামিন বি৬, যা আপনার হাঁপানি প্রতিরোধে সাহায্য করবে। আতা খেলে হৃদ্‌রোগের ঝুঁকিও কমে।

আরও পড়ুন: মেকআপ ছাড়াই সুন্দর হয়ে ওঠার টিপস

এই ফলে শর্করার পরিমাণ বেশি। আতা ফল আবার দুই ধরনের হয়ে থাকে। লালচে ও সবুজ। লালচে আতায় সবুজ রঙের আতার চেয়ে ক্যালরি ও আয়রন বেশি থাকে। কপার ও ডায়াটারি ফাইবার থাকায় এটি হজমের জন্য ভালো।

আতা ফলটি আয়রনে পরিপূর্ণ। আতা খেলে লোহিত রক্তকণিকা বাড়ে। এতে শরীরের রক্তশূন্যতা দূর হয়। এছাড়া খারাপ কোলেষ্টেরল কমাতেও এটি ভূমিকা রাখে।

আতায় আছে থিয়ামিন। এটি খাবারকে এনার্জিতে রূপান্তরিত হতে সাহায্য করে। আতায় আছে ম্যাগনেশিয়াম, যা হাড়ের গঠন মজবুত করে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *