ঘুমোতে যাওয়া ও ঘুম থেকে ওঠার কিছু নিয়মাবলী

Sleep

Mysepik Webdesk: সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠা শরীরের পক্ষে খুবই উপকারী। অনেকে রাতে দেরি করে ঘুমান আবার সকালেও দেরি করে ওঠেন। আবার দেরি করে ঘুমালেও সকালে তাড়াতাড়ি উঠে পড়েন। কিন্তু, এরফলে আখেরে শরীরেরই ক্ষতি হয়। বিশেষজ্ঞের মতে, রাত ১১টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়া উচিত এবং সকাল ৬টা থেকে ৭টার মধ্যে ঘুম থেকে উঠে পড়া উচিত। তাহলে শরীর যেমন ভালো থাকবে তেমনই দিনটাকে ও ব্যবহার করা যাবে।

আরও পড়ুন: করোনাকালে সবজি বা ফল জীবাণুমুক্ত করার উপায়

ঘুমোতে যাওয়া ও ঘুম থেকে ওঠার জন্য কি করবেন জেনে নিন:

১. একটি রুটিন ঠিক করুন। তাতে পরের দিন কি করবেন সব লিখে রাখুন। অবশ্যই সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজের রুটিন লিখে রাখবেন ডায়েরিতে। ঘুমোতে যাওয়ার আগে এসব করতে পারেন।

২. ঘুমানর ঠিক আগে কিছুক্ষণ হাঁটাহাটি করুন। এতে শরীরে রক্ত চলাচল ঠিক থাকে। তাই হালকা ব্যায়াম করতে পারেন তাতে ভাল ঘুম হয়।

আরও পড়ুন: যেসব খাবার গভীর রাতে ঘুমোনোর আগে খাওয়া উচিত নয়

৩. রাতে বইপড়ার অভ্যাস ভালো। ঘুমানোর আগে টেলিভিশন ও ল্যাপটপ বন্ধ রেখে বই পড়লে জ্ঞান বাড়বে। এর সেইসঙ্গে বই পড়তে পড়তে তাড়াতাড়ি ঘুমও পেয়ে যায়।

৪. রাতে ৬ ঘণ্টা অবশ্যই ঘুমান উচিত। তাই ঘুমনোর জন্য বেশি সময় নিন। আর সকাল ৬ টার মধ্যে ঘুম থেকে উঠে পড়ুন। এর জন্য ১০টার ভেতর ঘুমিয়ে পড়ার চেষ্টা করুন। ঘুম ভালো হলে আপনার মন চাঙ্গা থাকবে। আর এসবের জন্য রাতের খাবার তাড়াতাড়ি শেষ করতে হবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *