স্বাস্থ্যের আরও অবনতি, চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন না সৌমিত্র!

Soumitra Chatterjee

Mysepik Webdesk: করোনামুক্ত হলেও এই নিয়ে একটানা ১৯ দিন ধরে মিন্টোপার্ক সংলগ্ন অষ্টমীর রাত থেকেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। হাসপাতালের মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিত্‍সক অরিন্দম কর জানিয়েছেন, চিকিত্‍সায় কোনও সাড়া দিচ্ছেন না প্রবীণ অভিনেতা। গত ৭২ ঘন্টা ধরে তিনি আচ্ছন্ন রয়েছেন। তাঁর আচ্ছন্নভাব এখনও কাটেনি। অভিনেতার শরীরে কোভিড এনসেফালোপ্যাথি ক্রমশ বাড়ছে।

আরও পড়ুন: মৃত্যুর পর নিজের সব সৃষ্টিকর্ম ধ্বংস করতে বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ইচ্ছাপত্র প্রকাশ করলেন কবীর সুমন

চিকিত্‍সক অরিন্দম কর আরও জানান, ইমিউনোগ্লোবিন ও স্টেরয়েড দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া হলেও তা কোনও কাজে আসেনি। স্টেরয়েড ও অন্যান্য প্রচেষ্টাতেও চিকিত্‍সায় সাড়া দিচ্ছেন না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ফুসফুস ও রক্তচাপ এখনও পর্যন্ত ভালোভাবে কাজ করছে। কিন্তু মূলত তাঁর বয়স ও কোমর্বিডিটি নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছে চিকিৎসকদের। ধীরে ধীরে রক্তে প্লেটলেটের সংখ্যা কমছে। কিন্তু কী কারণে প্লেটলেট নেমে যাচ্ছে তা বোঝার চেষ্টা করছেন চিকিত্‍সকরা।

আরও পড়ুন: অষ্টমীর সকালে ঢাকের তালে নাচলেন নুসরত-মিথিলা

গত ৬ অক্টোবর করোনায় আক্রান্ত হয়ে মিন্টো পার্ক লাগোয়া বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন সৌমিত্র। এরপর কোরোনার হাত থেকে মুক্তি পেলেও তাঁর শারীরিক অবস্থা ক্রমেই অবনতির দিকে এগোয়। হাসপাতালের মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অরিন্দম কর এদিন সন্ধ্যায় জানান, করোনার সম্প্রসারিত প্রভাব বাদ দিলে এনসেফালোপ্যাথির অন্য কোনও কারণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সংক্রমণ কিংবা গঠনগত কোনও বিচ্যুতি এমআরআই-তে ধরা পড়েনি। দেশ-বিদেশের বিশেষজ্ঞ ও বিভিন্ন বিজ্ঞানপত্রিকা থেকে জানা যাচ্ছে, কোভিড রিলেটেড এনসেফালোপ্যাথির জেরে এমন অবস্থা এক থেকে তিন মাস পর্যন্ত থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে প্রথাগত চিকিৎসার পাশাপাশি সময়ের অপেক্ষা করা ছাড়া এই মুহূর্তে অন্য কোনও উপায় নেই।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *