শ্রীলঙ্কা সফরে ছয় নতুন মুখ দেখা যাবে টিম ইন্ডিয়ায়

Mysepik Webdesk: একদিকে টিম ইন্ডিয়া নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলার প্রস্তুতি নিচ্ছে, অন্যদিকে শ্রীলঙ্কা সফরের প্রস্তুতিও শুরু হয়েছে। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ম্যাচটি ১৮ জুন থেকে সাউদাম্পটনে অনুষ্ঠিত হবে। আর টিম ইন্ডিয়ার শ্রীলঙ্কা সফর জুলাই থেকে শুরু হবে। শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য ভারতীয় দল ঘোষণা করা হয়েছে। এই দলের অধিনায়ক শিখর ধাওয়ান। সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব সামলাবেন ভুবনেশ্বর কুমার। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে হবে টিম ইন্ডিয়াকে।

আরও পড়ুন: ইউরো জিততে মরিয়া ‘ডার্ক হর্স’ বেলজিয়াম

উল্লেখ্য, শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য যে দলে ঘোষিত হয়েছে, সেখানে এমন ছ’জন ক্রিকেটার রয়েছেন, যাঁরা প্রথমবারের মতো দলে সুযোগ পেয়েছেন। আইপিএলে এই ক্রিকেটাররা দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন, এ কারণেই টিম ইন্ডিয়ার দরজা তাঁদের জন্য খুলেছে। এঁদের মধ্যে রয়েছেন নীতীশ রানা, দেবদূত পাড়িক্কল, ঋতুরাজ গায়কোয়াড়, কৃষ্ণপ্পা গৌতম, বরুণ চক্রবর্তী এবং চেতন সাকারিয়া। বরুণ চক্রবর্তী ছাড়া আর কোনও খেলোয়াড়ই এর আগে টিম ইন্ডিয়ার হয়ে সুযোগ পাননি। যদিও বরুণ চক্রবর্তী এখনও পর্যন্ত কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেননি। শ্রীলঙ্কায় যে ছ’টি ম্যাচ হবে, সেখানে ক’জন ক্রিকেটারের অভিষেক ঘটবে, এখন সেটাই দেখার বিষয়। তবে একথা বলেই দেওয়া যায় যে, এই সফরে বেশি সংখ্যক ক্রিকেটারের অভিষেক ঘটতে চলেছে।

আরও পড়ুন: তুরস্ককে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ‘পুনরুত্থানে’র স্বপ্ন দেখাচ্ছে ইতালি

যখন শ্রীলঙ্কা সফর হবে, তখন অবশ্য ইংল্যান্ডে কোনও ম্যাচ নেই বিরাটদের। কিন্তু করোনা প্রটোকল এবং পৃথকীকরণের নিয়মের কারণে ভারতীয় খেলোয়াড়দের পক্ষে ইংল্যান্ড থেকে শ্রীলঙ্কায় এসে সিরিজ খেলা সম্ভব নয়। কারণ আগস্ট মাসেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে অংশ নিতে হবে ভারতকে। সেই কারণে শ্রীলঙ্কায় ভিন্ন দল পাঠাতে হচ্ছে ভারতকে। ইংল্যান্ডে থাকা টিম ইন্ডিয়ার কোচিংয়ে ব্যস্ত থাকবেন রবি শাস্ত্রী। সেই কারণে রাহুল দ্রাবিড়কে শ্রীলঙ্কায় দলের প্রধান কোচ হিসেবে দেখা যাওয়াটা সময়ের অপেক্ষা মাত্র। অন্যদিকে, শ্রেয়স আইয়ারের চোট থাকায় তিনি শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে পারছেন না। তাই, শিখর ধাওয়ানকে প্রথমবারের মতো ভারতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবেন। শ্রীলঙ্কা সফর নিঃসন্দেহে ভারতীয় দলের ক্রিকেট ইতিহাসের ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত হতে চলেছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *