ভবানীপুরে দিলীপ ঘোষের সভায় দফায় দফায় উত্তেজনা

Dilip Ghosh

Mysepik Webdesk: ভবানীপুরের উপনির্বাচনে আজই শেষ দিনের প্রচার। যদুবাবুর বাজারে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ ঘোষ। দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়াল ভবানীপুরে দিলীপ ঘোষের সভায়। মাথা ফাটল এক বিজেপি কর্মীর। আহত হলেন বেশ কয়েকজন। বাধা পেয়ে পুলিশি নিরাপত্তায় ঘটনাস্থল ছাড়তে হল দিলীপ ঘোষ, অর্জুন সিংদের।

আরও পড়ুন: চিটফান্ড মামলায় মদন মিত্র ও তাঁর ছেলেকে সিবিআই-এর তলব

বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতির বিরুদ্ধে টিকাকরণ কেন্দ্রে ভোট প্রচারের অভিযোগ করেন স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। তাঁদের দাবি, প্রথমে স্থানীয় এক তণমূল কর্মীকে ধাক্কা দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। এরপরই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অভিযোগ, বিজেপি নেতাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তৃণমূল কর্মীরা। দেওয়া হয় জয় বাংলা স্লোগান। পাল্টা জয় শ্রীরাম স্লোগান দেন বিজেপি কর্মীরা। এরপর ভাবনারায়ণ সিং নামে এক বিজেপি কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। দিলীপ ঘোষের নিরাপত্তা রক্ষীরা বন্দুক উঁচিয়ে ভিড় হঠানোর চেষ্টা করেন। গোটা ঘটনায় অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। 

আরও পড়ুন: নরেন্দ্র মোদীকে হারাতে পারেন একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই, ভবানীপুরে প্রচারে অভিষেক

এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তিনি বলেছেন, এই ঘটনার প্রমাণ হয়ে গেল পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র নেই। সুকান্তবাবুর কথায়, “এটা কেমন সংস্কৃতি! মমতা যখন দিল্লি যান, তাঁকে ঘিরে কেউ ‘জয় শ্রীরাম’ বলেন? অভিষেকের সঙ্গে সংসদে দেখা হলে ‘জয় শ্রীরাম’ বলি আমরা?” এরপর তাঁর সংযুক্তি, ভবানীপুরে গুন্ডা, তালিবানি গুন্ডা নামিয়েছে তৃণমূল। বলেন, হয়ত বাংলাদেশ থেকেও আসতে পারে। এতে যাতে ভয় পেয়ে মানুষ ভোট না দিতে যায় সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। আফগানিস্তান এর চেয়ে ভাল অবস্থায় রয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *