Latest News

Popular Posts

রোজ গরম জল খাওয়ার উপকারিতা

রোজ গরম জল খাওয়ার উপকারিতা

Mysepik Webdesk: বাড়ির বড়োরা প্রায়ই আমাদের গরম জল খাওয়ার কথা বলে থাকেন। বর্তমান সময়ে আপনার যোগব্যায়ামের ইনস্ট্রাক্টরও কিন্তু একই কথা বলেন। রোজ গরম জল খাওয়ার উপকারিতা জানলে আপনিও রীতিমতো অবাক হয়ে যাবেন। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, প্রত্যেকটি মানুষের রোজ গরম জল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিত। শরীরে টক্সিক বা বিষাক্ত পদার্থ জমে যাওয়ার কারণে আমাদের বয়স্ক দেখায়। গরম জল শরীর থেকে সে সব বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিয়ে ত্বকের কোষগুলোকে মেরামত করে এবং কোষগুলোর নমনীয়তা বাড়িয়ে তোলে। আসুন দেখে নেওয়া যাক, রোজ গরম জল খেলে আমাদের কী কী উপকার হয়।

আরও পড়ুন: শীতে অ্যালার্জি থেকে কিভাবে বাঁচবেন?

রক্ত সংবহন প্রক্রিয়া উন্নত করে: গরম জল খেলে গায়ের রং ফর্সা হোক বা কালো, ত্বকের উজ্জ্বলতা অনেকটা বৃদ্ধি পায়। রূপলাবণ্য বৃদ্ধি পায়। গরম জল খেলে শরীরে তথা স্নায়ুতন্ত্রে জমে থাকা ফ্যাট শরীর থেকে নির্গত হয়ে যায়। এর পাশাপাশি শরীরে জমে যাওয়া বিষাক্ত পদার্থও বেরিয়ে যায় এবং শরীরের রক্ত সংবহন ব্যবস্থা আরও উন্নত হয়ে ওঠে। রক্ত সংবহন ভাল হওয়ার কারণে রঙেও উজ্জ্বলতা ফুটে ওঠে।

ওজন কমায়: কারও ডায়েটিং করার অভ্যেস থাকলে অবশ্যই রোজ সকালবেলা গরম জল খাওয়ার অভ্যাস করা উচিত। শরীরের ওজন কমাতে এই পদ্ধতি অত্যন্ত কার্যকর। গরম জল খেলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়, ফলে শরীরের বিপাকীয় ক্রিয়া বা মেটাবলিজমের হারও বেড়ে যায়। মেটাবলিজমের হার বাড়লে শরীরে ক্যালরি দ্রুত গতিতে পুড়তে থাকে। ফলে, পরিপাক তন্ত্র আর কিডনি, দুই অঙ্গই খুব ভালো কাজ করে। ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠে গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে শরীরে জমা হওয়া ফ্রি র‍্যাডিক্যালসের পরিমাণ কমে আসে। লেবুর রসে পেকটিন ফাইবার থাকে, তাই গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে খিদের ভাবও কমে আসে।

আরও পড়ুন: শীতকালে স্নান করার সময় এই ভুলগুলি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো

ব্যথা থেকে মুক্তি: রোজ গরম জল খেলে শরীরের ব্যথাবেদনা থেকে মুক্তি মেলে। মহিলাদের ক্ষেত্রে পিরিয়ডের ব্যথা, মাথাব্যথা, গা-হাত-পা ব্যাথা যে কোনও ব্যথা কমাতেই গরম জল পান করলে উপকার পাওয়া যায়। কারণ গরম জল শরীরের পেশির উপর এমন প্রভাব ফেলে যাতে ক্র্যাম্প বা পেশির শক্তভাব কমে যায়। নিয়মিত গরম জল পান করলে শরীরে রক্ত সংবহনও বেড়ে যায় এবং শক্ত হয়ে থাকা পেশিগুলো আরাম পায়। কাজেই গরম জল খাওয়ার উপকারিতা যদি হাতেনাতে পরখ করতে চান, তা হলে পিরিয়ডের সময় গরম জল খেয়ে দেখতে পারেন। অবশ্যই উপকার পাবেন।

হজমের সহায়ক: গরম জল খাওয়ার এই উপকারিতা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। পরিপাকতন্ত্র সুস্থ থাকলে মানুষ সুস্থ থাকে এবং মানুষ সুস্থ থাকলে তবেই বাড়ে শারীরিক সৌন্দর্য। প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস জল পান করলে শরীরের বিষাক্ত পদার্থ বেরিয়ে যায়। জল এবং অন্য তরল পাকস্থলীতে জমে থাকা খাবারকে দ্রুত ভেঙে দিয়ে পরিপাকতন্ত্রকে মসৃণভাবে কাজ করতে সাহায্য করে। গরম জল খেলে এই কাজটি আরও দ্রুত গতিতে হয়, ফলে খাবার ভালোভাবে হজম হতে পারে। ঠান্ডা জল খেলে খাবারের তেল বা ঘি জাতীয় পদার্থ পাকস্থলীর ভেতর শক্ত হয়ে যায় এবং তা পরবর্তীকালে ফ্যাট হয়ে পেটে জমতে থাকে। এর ফলে খাবারের খনিজ পদার্থগুলিও শরীরে শোষিত হয় না।

আরও পড়ুন: দৈনিক ৮ ঘণ্টা ঘুমাচ্ছেন তো? না ঘুমালে কিন্তু বিপদ!

কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়: আমরা অনেকেই কমবেশি পেটের সমস্যায় কষ্ট পাই। কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকলে পেট ঠিক করে পরিষ্কার হয় না। এই কারণেই কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাকে মোটেই অবহেলা করা উচিত নয়। রোজ গরম জল খাওয়ার অভ্যাস কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দেয়। গরম জল পাকস্থলীর খাবারকে দ্রুত ভেঙে দেয়, ফলে হজম হয় সহজেই। আর খাবার ঠিকমতো হজম হলে বর্জ্য পদার্থ দ্রুত শরীর থেকে নির্গত হয়।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *