ব্যবহৃত কনডম সংগ্রহ করে পরিষ্কার করে ফের প্যাকেটজাত করে দিব্বি চলছিল ব্যবসা, পুলিশের তৎপরতায় প্রকাশ্যে জালিয়াতি

condom

Mysepik Webdesk: সংবাদমাধ্যম সূত্রে আজকাল জালিয়াতির অনেক খবরই আর গোপন থাকে না। তবে মনে হয় এই প্রথম কন্ডোম নিয়ে জালিয়াতির ঘটনা প্রকাশ্যে আসল। তবে এই খবর শুনলে আপনার গা ঘিন ঘিন করতেই পারে কারণ এক্ষেত্রে ব্যবহার করা কন্ডোম নিয়ে চলছিল জালিয়াতির ব্যবসা। ব্যবহার করে ফেলে দেওয়া কন্ডমকে সংগ্রহ করে সেগুলিকে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করে ফের প্যাকেটজাত করে বাজারে বিক্রি করে দিব্বি রমরমিয়ে চলছিল ব্যবসা। কিন্তু পুলিশের তৎপরতায় প্রকাশ্যে এসেছে তাদের এই কন্ডোম জালিয়াতির ঘটনা।

আরও পড়ুন: পূর্বে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন, এমন ব্যক্তিদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম, বলছেন গবেষকরা

ভিয়েতনামের কিছু অঞ্চলে বেশ রমরমিয়ে চলছিল এই ব্যবহৃত কন্ডোমের ব্যবসা। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ গত ২২ সেপ্টেম্বর ভিয়েতনামের দক্ষিণ বিন দুয়ং প্রদেশের একটি গুদামঘরে রেড করে। আর তাতেই ফাঁস হয়ে যায় জালিয়াতি চক্রটি। গ্রেফতার করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে। তাদের মধ্যে একজন মহিলাও রয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে প্রায় ৩৬০ কেজি ব্যবহৃত কন্ডোম উদ্ধার করা হয়েছে। প্রায় ৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকার কন্ডোমের প্যাকেট পাওয়া গিয়েছে।

আরও পড়ুন: বিশ্বের প্রাক্তন সবচেয়ে স্থূল ব্যক্তি জয় করলেন করোনা

ধৃতদেরকে জেরা করে জানা গিয়েছে, জঞ্জাল থেকে ফেলে দেওয়া ব্যবহৃত কন্ডোম সংগ্রহ করে তাকে প্রথমে গরম জলে ধোওয়া হত। তারপর ভালোভাবে সেগুলিকে রোদে শুকিয়ে প্রয়োজনীয় রাসায়নিক মিশিয়ে সেগুলিকে ফের প্যাকেটে ভরে সিল করে বিক্রির জন্য দোকানে পাঠিয়ে দেওয়া হত। ধৃতদের জেরা করে পুলিশ জানতে চেষ্টা করছে, এই কন্ডোম জালিয়াত চক্রের কোনও আন্তর্জাতিক যোগসূত্র আছে কিনা। ওই জাল কন্ডোমগুলো শুধু দেশের বাজারে বিক্রি হত না বিদেশেও যেত, খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *