BSNL-MTNL পুনরুদ্ধারে বড়োসড়ো পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকারের

Mysepik Webdesk: লোকসানে জর্জরিত ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড (BSNL) এবং মহানগর টেলিকম নিগম লিমিটেড (MTNL)। এবার এই দুই সংস্থাকে বাঁচাতে বড়োসড়ো পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, এবার থেকে কোনও মন্ত্রক, সরকারি দফতর, স্বশাসিত সংস্থা এবং রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প সংস্থায় করো বেসরকারি টেলিফোনে কিংবা ইন্টারনেট পরিষেবা নেওয়া যাবে না। পরিবর্তে ওই সংস্থাগুলিতে BSNL এবং MTNL -এর পরিষেবা নেওয়া বাধ্যতামূলক।

আরও পড়ুন: তেলেঙ্গানায় ভারী বৃষ্টির জেরে এখনও পর্যন্ত মৃত ৩০

গত ১২ অক্টোবর টেলিকম দফতর (DoT) থেকে প্রকাশিত একটি মেমোরেন্ডামে জানানো হয়েছে, ইন্টারনেট/ব্রডব্র্যান্ড, ল্যান্ডলাইন কিংবা লিসড লাইনের ক্ষেত্রে BSNL বা MTNL-এর ব্যবহার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রতিটি মন্ত্রক এবং দফতরকে অনুরোধ করা হচ্ছে। পাশাপাশি প্রতিটি মন্ত্রক বা দফতরের অধীনে যে রাষ্ট্রায়ত্ত এন্টারপ্রাইজ বা কেন্দ্রীয় স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেখানেও যাতে এটি কার্যকর করা হয় তার জন্যও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: লাদাখ নিয়ে চিনের দাবি উড়িয়ে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হল ভারতের তরফ থেকে

একটা সময় ছিল, যখন ল্যান্ডলাইন পরিষেবার কথা আসলেই প্রথমে শুধুমাত্র BSNL -এর কথাই মনে আসত। তবে গত কয়েক বছরে ওই দুই সংস্থার জনপ্রিয়তা কমতে কমতে একেবারে তলানিতে এসে ঠেকেছে। জানা গিয়েছে ২০০৮ সালে যেখানে BSNL -এর মোট গ্রাহক সংখ্যা ছিল, ২ কোটি ৯০ লক্ষ, সেখানে ২০২০ সালের জুলাই মাসে তা কমে দাঁড়িয়েছে মাত্র ৮০ লক্ষে। একই রকম অবস্থা MTNL -এরও। পাশাপাশি পরিষেবার মানও ধীরে ধীরে খারাপ হয়ে যাওয়ায় গ্রাহকরা মুখ ফিরিয়েছে BSNL-MTNL -এর দিক থেকে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *