পাড়ার করোনা রোগীকে দেখতে হবে পাড়ার ডাক্তারকেই, নির্দেশ স্বাস্থ্য দপ্তরের

Coronavirus in West Bengal

Mysepik Webdesk: রাজ্যের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় রোজ গড়ে ৮০০ -র কাছাকাছি মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই করোনা সংক্রমণ রুখতে একাধিক ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর। তবে মৃদু কিংবা অল্প উপসর্গযুক্ত রোগীকে বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীর চিকিৎসার চিকিৎসার ক্ষেত্রে বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। এবার থেকে ওই রোগীদের চিকিৎসার জন্য আই এম এ ও আই এ পি সদস্যদের যুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর।

আরও পড়ুন: রাজ্যের প্রস্তাবে বিভিন্ন রুটে অফিস টাইমে চলতে পারে ২০০টি লোকাল ট্রেন চালাতে রাজি রেল

West Bengal: Four People 'Test Positive' For Coronavirus Without Undergoing  Test

চিকিৎসার বিষয়ে দক্ষতা বাড়াতে আই এম এ ও আই এ পি সদস্যদের ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে। ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে তাঁদেরকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে কীভাবে প্রোটোকল মেনে বাড়িতে থাকা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা করা সম্ভব। এই কাজের জন্য উত্তর ২৪ পরগনা জেলার দুই সংগঠনের মোট ২৭ টি শাখার চিকিৎসকদের একটি টিমকে যথাযথ ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। তারাই বাকিদেরকে ট্রেনিং দিয়ে দেবেন।

আরও পড়ুন: চম্পাহাটির বাজি কারখানায় ভয়াবহ আগুন, পুড়ে ছাই একাধিক দোকান

West Bengal shuts down non-essential services as Covid-19 cases rise to 3 |  Business Standard News

করোনা পরীক্ষার পর ফলাফল পজিটিভ হওয়ার পর পুরসভা থেকে প্রথমে রোগীর লিস্ট তাদের কাছে দেওয়া হবে চিকিৎসার জন্য। এরপর সেই রোগীদের তাঁরাই চিকিৎসা পরিষেবা দেবেন। যতদিন না পর্যন্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠছেন, ততদিন পর্যন্ত প্রতিদিন রুগিকে তাঁরা পরামর্শ দেবেন। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় যাবতীয় সরঞ্জামের যোগান দেবে সংশ্লিষ্ট পুরসভা। আপাতত কলকাতা করপোরেশন, উত্তর ২৪ পরগনা ও নদিয়াতে এই ব্যবস্থা কার্যকর করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *