হিমাচল প্রদেশের লাহুল স্পিতি জেলায় নির্মিত হবে দেশের সর্বোচ্চ ক্রিকেট স্টেডিয়াম

Mysepik Webdesk: দেশের সর্বোচ্চ ক্রিকেট স্টেডিয়াম হিমাচল প্রদেশের লাহুল স্পিতি জেলায় নির্মিত হবে। ১০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন এই স্টেডিয়ামটি রোহতাংয়ের অটল টানেল থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে সিসুতে নির্মিত হতে চলেছে। রাজ্যের সোলান জেলার চেইলে দেশের সর্বোচ্চ ক্রিকেট স্টেডিয়াম রয়েছে ৭,৫০০ ফুট উচ্চতায়। এটি ১৮৯১ সালে পতিয়ালার মহারাজা ভূপেন্দ্র সিং নির্মাণ করেছিলেন।

আরও পড়ুন: ২০২২ সালের বিশ্বকাপ শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট হতে পারে মিতালি রাজের

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১১ হাজার ফুট উচ্চতায় নির্মিত এই স্টেডিয়ামটি নির্মাণের জন্য ৩৮ বিঘা জমি নির্বাচন করা হয়েছে। ফরেস্ট প্রোটেকশন অ্যাক্ট (এফসিএ)-এর আওতায় জমি অধিগ্রহণকে দেহরাদুনে অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে, যাতে স্টেডিয়ামের জন্য জমি স্থানান্তর করা যায় এবং স্টেডিয়াম নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু করা যায়।

আরও পড়ুন: নেপালের সবচেয়ে বিপজ্জনক শৃঙ্গ লবুচে জয় করলেন অনিতা কুণ্ডু

লাহাউল স্পিতি জেলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন গত সাত বছর ধরে স্টেডিয়াম তৈরির জন্য লড়াই করে চলেছে। স্টেডিয়ামটি লাহুল-স্পিতির সঙ্গে পাঙ্গি কিলাদ, কুলু ও চাম্বা-র ক্রিকেটারদের উপকৃত করবে। লাহুল-স্পিতি জেলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সুরেন্দ্র ঠাকুর বলেছেন যে, এর ফাইল বন বিভাগে জমা দেওয়া হয়েছে। রাজ্য সরকারের সুপারিশের পরে ফাইলটি এফসিএ-র অনুমোদনের জন্য দেহরাদুনে পাঠানো হবে। যার পরে সিসুতে ক্রিকেট স্টেডিয়াম নির্মাণের পথটি প্রশস্ত হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: জন্মদিনে প্লাজমা দানে অঙ্গীকার করলেন শচীন তেন্ডুলকার

শীতে সিসুর তাপমাত্রা মাইনাস ২০ ডিগ্রিতে নেমে আসে। যদিও গ্রীষ্মে তাপমান থাকে ১৫ থেকে ২০ ডিগ্রি। এখানকার আবহাওয়া বছরের প্রায় ৭ মাস অনুকূল থাকে, যা ক্রিকেটের পক্ষে ভালো। এই কারণেই জায়গাটি নির্বাচন করা হয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *