কোনও কোচিং-এ না পড়েই গরীব দোকানদারের মেয়ে এখন IAS অফিসার

Mysepik Webdesk: কথায় আছে না ইচ্ছা থাকলেই উপায় হয়। আবার কঠোর পরিশ্রমের মধ্যেই রয়েছে সাফল্যের চাবিকাঠি। কথাগুলি যে বাস্তব ক্ষেত্রেও সমানভাবে প্রযোজ্য, তা প্রমান করে দিয়েছেন ঋষিকেশের লাজপত রাই মার্গের বাসিন্দা নামামি বানসাল। কোনও কোচিং-এ না পড়েই তিনি এখন IAS অফিসার।

আরও পড়ুন: ভারতীয় বায়ুসেনার মহিলা পাইলটের হাতে এবার রাফাল ওড়ানোর দায়িত্ব

ঋষিকেশে নামামির বাবার একটি ছোট বাসনের দোকান রয়েছে। দারিদ্র্যের সাথে লড়াই করে একেবারেই নিম্ন মধ্যবিত্তের জীবন যাপন পরিবারের। মেয়ের IAS পরীক্ষার জন্য সামান্য কোচিন ক্লাসে ভর্তি করানোর মতোও ক্ষমতা নেই তাঁর। অথচ নামামির অদম্য জেদ তাঁকে তাঁর লক্ষ থেকে বিন্দুমাত্র হটাতে পারেনি। বাড়িতে পড়াশোনা করেই নমামি ইউপিএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

আরও পড়ুন: ইতিহাসে এই প্রথম ভারতীয় নৌসেনায় প্রথম মহিলা অফিসার

নমামির বাবা রাজকুমার বানসাল জানিয়েছেন, তাঁর মেয়ে বরাবরই কৃতি ছাত্রী। দশম শ্রেনীর পরীক্ষায় তিনি 92.4 শতাংশ নম্বর পেয়েছিলেন। উচ্চমাধ্যমিকেও তিনি 94.8 শতাংশ মার্কস পেয়েছিলেন। এমনকি এমএ-তেও মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম হয়েছিলেন তিনি। UPSSC পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য কোনও ধরণের কোচিং নেননি তিনি। শুধুমাত্র ইন্টারনেটের সাহায্যেই তিনি পড়াশোনা করে আজ এই জায়গায় পৌঁছেছেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *