আইপিএলে বাইরে থাকার ভয়েই ভারতীয় ক্রিকেটারদের টেস্ট না খেলার সিদ্ধান্ত, অভিযোগ ইসিবির সিইও-র

Mysepik Webdesk: করোনা আতঙ্কে ম্যাঞ্চেস্টারে বাতিল হয়ে গিয়েছে ভারত-ইংল্যান্ড পঞ্চম টেস্ট। যা নিয়ে সরগরম ব্রিটিশ মহল। টেস্ট বাতিলের পর ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) টম হ্যারিসন ভারতীয় থিঙ্কট্যাঙ্ককে কাঠগড়ায় তুলেছেন। হ্যারিসন বলছেন, ‘‘করোনার কারণে নয়, বরং ‘কী হতে পারে’ এই ধারণার উপর ভিত্তি করে ম্যাচটি বাতিল হয়েছে।”

আরও পড়ুন: মডেল ‘ঘরের ছেলে’ সত্যজিৎ: অ্যামাজনে এক ঘণ্টায় শেষ ’১১-র শিল্ড জয়ের মোহনবাগান জার্সির রেপ্লিকা

টম হ্যারিসন বলেন, ‘‘ভারতীয় ক্রিকেটাররা যাতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন, সেই জন্য তাঁদের বোঝানোর সব রকম চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু সহকারী ফিজিও যোগেশ পরমার কোভিড পজিটিভ হওয়ায় আতঙ্কিত খেলোয়াড়রা মাঠে নামতে নারাজ হন। তিনি আরও বলেন, এটা সত্যিই দুঃখজনক দিন। আমি সমর্থকদের জন্য হতাশ। আমরা খুবই দুঃখিত। অনেক দর্শক আসতেন এই ম্যাচে। তবে বৃহস্পতিবার বিকেলে এটা স্পষ্ট হয়ে গেল যে, ভারতীয় দলে মানসিক চাপের মাত্রা খুব বেশি ছিল। হ্যারিসনের মতে, ইসিবি ভারতীয় দলের সঙ্গে একটি বৈঠকও করেছিল। কিন্তু দলের কিছু খেলোয়াড় ইতিমধ্যেই ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট খেলবেন না বলে মনস্থির করেছিলেন।”

আরও পড়ুন: চাপে পড়ে স্টেটমেন্ট এডিট ইসিবি-র, তুমুল তরজার আশঙ্কা ইন্দো-ব্রিটিশ শিবিরে, কী হবে ৫ম টেস্টের ভবিষ্যৎ?

হ্যারিসনের কথায়, ‘‘ভারতীয় খেলোয়াড়রা ভয় পেয়েছিলেন যে, যদি শেষ ম্যাচের সময় কোনও খেলোয়াড়ের রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাহলে তাঁকে আইসোলেসনে থাকতে হবে। এরজন্য সেই খেলোয়াড় আইপিএলে অংশ নিতে পারতেন না। ড্রেসিংরুমে একবার টেনশন ঢুকলে এর থেকে বেরিয়ে আসা খুবই কঠিন।” উল্লেখ্য যে, পঞ্চম টেস্ট বাতিলের পর বিসিসিআই জানিয়েছিল, উভয় বোর্ডই ম্যাচটি যাতে অন্য কোনও সময় আয়োজন করা যায়, সেই চেষ্টাই করবে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই বাতিল টেস্ট ম্যাচটি আগামী বছরের জুলাইয়ে হতে পারে। ওই সময় যখন ভারতীয় দল সীমিত ওভারের সিরিজের জন্য ইংল্যান্ড সফর করবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *