পড়াশোনার খরচ সামলাতে ১০০ দিনের কাজ করছেন ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রী

Mysepik Webdesk: সংসার চালাতেই হিমশিম খেয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু জীবনে বড়ো কিছু একটা করার লক্ষে অবিচল। এদিকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়েও চান্স পেয়ে গিয়েছেন। তাই পড়ার খরচ জোগাড় করতে কেন্দ্রের ১০০ দিনের কাজে যোগ দিয়েছেন ওড়িশার পুরীর বাসিন্দা রোজি বেহরা। তাঁর পড়াশোনার প্রতি এই আগ্রহকে কুর্নিশ জানিয়েছে দেশবাসী।

আরও পড়ুন: এবার ডেবিট কার্ড ছাড়াই এসবিআই এটিএম থেকে টাকা তোলা যাবে, জেনে নিন কীভাবে?

২০১৯ সালে তিনি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিপ্লোমা পাশ করেছিলেন। এরপর বি টেক করার জন্য রোজি একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি হলেও তাঁর পড়াশোনার খরচের ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ায় পরিবারের আর্থিক অবস্থা। কিন্তু তাঁর মনের জেদ প্রবল, তাই পড়াশোনার খরচ এবং হোস্টেলে থাকার খরচ জোগাতেই তিনি এই রাস্তা বেছে নিয়েছেন। জানা গিয়েছে, স্থানীয় বিধায়ক এবং ওই পড়ুয়ার বহুবার অনুরোধ সত্ত্বেও হোস্টেল এবং বাসের ফি মকুব করেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: কৃষি আন্দোলন আরও তীব্র হওয়ার ইঙ্গিত, গাজিপুর সীমান্ত থেকে পিছু হটল পুলিশ

সেই কারণেই একপ্রকার বাধ্য হয়েই তাঁকে তিন-চার সপ্তাহ ধরে মনরেগার কাজ করতে শুরু করে দিয়েছেন তিনি। সংবাদমাধ্যমে তিনি জানান, প্রতিদিন কাজ করে তিনি ২০৭ টাকা আয় করেন। তাঁর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। ইতিমধ্যে স্থানীয় বিডিও রোজির পড়াশোনায় সমস্ত রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *