সীমানায় ঢুকে গিয়ে ভারত আক্রমণ করবে, সেই ভয়েই ছাড়া হয়েছিল অভিনন্দনকে, স্বীকারোক্তি পাক সাংসদের

abhinandan bartaman

Mysepik Webdesk: প্রকাশ্যে শান্তি স্থাপনের কথা বলা হলেও ভেতরে ভেতরে অন্য কোনও ভয় কাজ করছিল পাক সরকারের মনে। জানা গিয়েছে, প্রবল চাপের মুখে পড়ে কার্যত ভয় পেয়ে অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দিয়েছে পাকিস্তান। না, এই দাবি একেবারেই ভারতের নয়, একথা প্রকাশ করেছেন এক পাকিস্তানী সাংসদ। পাকিস্তানের জাতীয় সংসদে এক ভাষণে মুসলিম লিগ নওয়াজ নেতা আয়াজ সাদিক বলেন, অভিনন্দন বর্তমানকে ফেরানো হয়েছে শুধুমাত্র ভারতের পক্ষ থেকে প্রত্যাঘাতের ভয়েই।

আরও পড়ুন: সৌদি জেলে আমরণ অনশনে নারী মানবাধিকার নেত্রী

পাক-সেনা ভারতীয় সেনার চরিত্র খুব ভালোভাবেই বোঝে। পাকিস্তান ভালোভাবেই জানে অভিনন্দনকে না মুক্তি দিলে ভারতীয় সেনা পাকিস্তানের সীমানায় ঢুকে হামলা করবে। আর সেই কারণেই শান্তি রক্ষার বাণী আউড়ে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল অভিনন্দনকে। আয়াজ সাদিক দাবি করেন, ওই সময় পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেছিলেন, নির্দিষ্ট দিনে রাত ন’টার মধ্যে অভিনন্দনকে মুক্তি না দিলে ভারত নিশ্চিত হামলা করবে। আর সাদিকের এই মন্তব্যকে উদ্ধৃত করেছে পাকিস্তানের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যম দুনিয়া নিউজ।

আরও পড়ুন: সুদের টাকা না পেয়ে ধার নেওয়া ব্যক্তির স্ত্রীকে তুলে নিয়ে বিয়ে, চাঞ্চল্য এলাকায়

দুনিয়া নিউজ-এর সম্প্রচার করা ওই ভিডিও ক্লিপে দেখা গিয়েছে, সাদিক বলছেন, ইমরান খান সেদিন শাহ মহম্মদ কুরেশি এব চিফ অফ আর্মি স্টাফ কোমর জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে বৈঠকে রাজি ছিলেন না। এই আর্মি চিফ বিশ্রীরকম ঘামছিলেন, তাঁর হাঁটু কাঁপছিল। শাহ মহম্মদ কুরেশি ওই বৈঠকে বলেন, ঈশ্বরের নামে অভিনন্দনকে ছেড়ে দিতে হবে। নাহলে রাত নটার মধ্যে ভারতীয় সেনার তরফ থেকে হামলা শুরু হবে। যদিও অভিনন্দনের মুক্তির ঘটনাকে প্রকাশ্যে শান্তি স্থাপনের পদক্ষেপ বলে বর্ণনা করেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *