আগেই মৃত্যু হওয়া মহিলা আসামিকে ঝোলানো হল ফাঁসিতে

Mysepik Webdesk: আগেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল এক মহিলা ফাঁসির আসামির। মৃত্যুর পরেও রেহাই দেওয়া হল না তাকে। সেই মৃতদেহটিকে এবার ঝোলানো হল ফাঁসিতে। চরম অমানবিক ও নৃশংসতার পরিচয় দিলো ইরানের একটি জেল। জানা গিয়েছে, অপরাধ প্রমাণিত হওয়ার পর ওই মহিলাকে ফাঁসির সাজা শোনানো হয়। এদিকে ফাঁসির সাজা হওয়ার আগেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় ওই মহিলার। কিন্তু তাতেও নিষ্কৃতি মেলেনি। সেই দেশের প্রশাসন মানবিকতা ভুলে মৃত মহিলার হাত পা বেঁধে তাঁর মৃতদেহকে একটি টুলের উপর বসিয়ে গলায় ফাঁসির দড়ি পরিয়ে দেয়। এরপর সেই টুলটি লাথি মেরে ফেলে দেওয়া হয় আর মহিলার দেহ ফাঁসি কাঠে ঝুলে যায়।

আরও পড়ুন: ইউহানের ল্যাব থেকেই ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস, গবেষণাপত্র প্রকাশ জার্মান বিজ্ঞানীর

16 convicts hanged to death in India since 1991 - India News

জানা গিয়েছে, ওই মহিলাকে তাঁর স্বামীর হত্যার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। তারপর ওই মহিলাকে তেহরানের রাজাই শহরের একটি জেলে রাখা হয়। সাজা প্রাপ্ত মহিলার নাম জাহরা ইস্মাইলি। ওই মহিলার স্বামী ইরানের গোয়েন্দা বিভাগের কর্তা ছিলেন। বিচার চলাকালীন আদালতে ওই মহিলা জানিয়েছিলেন, তাঁর স্বামী তাঁকে এবং তাঁর বাচ্চাদের প্রায়ই মারধর করত। আর সেই অত্যাচার সহ্য করতে করতে তিনি তাঁর স্বামীকে খুন করেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও ইরানে আইনের কড়াকড়ির কারণে তাঁকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: আত্মহত্যার ঘটনা রুখতে জাপানের মন্ত্রিসভায় নতুন সংযোজন ‘একাকিত্ব মন্ত্রী’

A woman to be hanged for the first time in India | Dhaka Tribune

মহিলার আইনজীবী জানান, ইরানের প্রশাসন ওই মহিলাকে যেনতেন প্রকারে ফাঁসি দিতে চেয়েছিল। পুত্র হারা মাকে (জাহরার শাশুড়ি) বিচার পাইয়ে দেওয়ার জন্য জাহরা ইস্মাইলিকে ফাঁসিতে ঝোলানোর জন্য বদ্ধপরিকর ছিল আদালত। মহিলার আইনজীবী আরও জানান, এর আগে ওই জেলে ১৬ জনকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল। আর সেই ফাঁসি দেওয়ার আতঙ্কেই ফাঁসির আগে মৃত্যু হয় মহিলার।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *