আরও ভয়ংকর হচ্ছে দাবানল

Fire in America

Mysepik Webdesk: গতকয়েক দিনে এই ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ছাই গেছে প্রচুর সম্পত্তি। বাধ্য হয়ে ঘর ছাড়ছেন ওরেগনের বাসিন্দারা। করোনা-আতঙ্কের মধ্যেও আপাতত আশ্রয় নিতে হচ্ছে অস্থায়ী শিবিরে। তবে দিন দিন আরও ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে দাবানল।

আরও পড়ুন: জোর করে ছাত্রের সঙ্গে যৌনসঙ্গম শিক্ষিকার, পুলিশের দ্বারস্থ ছাত্রের মা

আমেরিকার পশ্চিম অংশের তিন প্রদেশের বিস্তীর্ণ এলাকায় এখন ভয়াবহ দাবানলের কবলে। ওরেগন, ওয়াশিংটন আর ক্যালিফর্নিয়া- এই তিন প্রদেশ মিলে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩১ জনের। তাদের মধ্যে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে ক্যালিফর্নিয়াতে। ওয়াশিংটনে মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। আর ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে ওরেগনে। ভয়াবহ আগুনের কবলে পরে বাড়ি থেকে বেরোতে না পেরেই পুড়ে মারা গিয়েছেন অনেকে। কিন্তু মৃত্যুর থেকেও নিখোঁজের সংখ্যা বেশি ভাবাচ্ছে প্রশাসনকে। বহু মানুষ এখনও নিখোঁজ। ফলে মৃতের সংখ্যা হু-হু করে বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। স্বাভাবিক ভাবে শ্বাস নিতে পারছেন না বহু মানুষ। শ্বাস নেওয়ার জন্য ওরেগনের বিভিন্ন এলাকায় দরজায় মোটা তোয়ালে ভিজিয়ে রেখে ধোঁয়া আটকাতে হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ২০২৪ সালের আগে বিশ্বের প্রতি মানুষ ভ্যাকসিন পাবেন না, স্পষ্ট জানিয়ে দিল সেরাম ইনস্টিটিউট

এই দাবানলের ফলে বেশ কয়েকটি শহরে মোট ৪০ হাজার মানুষ ঘরছাড়া। গভর্নর কেট ব্রাউন জানিয়েছেন, আরও ৫ লাখ মানুষকে যে কোনও সময়ে বাড়ি খালি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ রিভারসাইড এবং বিচি ক্রিকের আগুন একে অপরের দিকে এগিয়ে আসছে। আর এই দুটি যদি এক সঙ্গে মিশে যায় তাহলে আরও ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। মোট ১৬ হাজার দমকলকর্মী নিজেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে আগুন নেভাতে ব্যস্ত।

হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগামীকাল ক্যালিফর্নিয়া গিয়ে নিজে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবেন। অন্যদিকে ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেনসহ এই তিন প্রদেশের তিন ডেমোক্র্যাট গভর্নরই এই বিধ্বংসী দাবানলের জন্য বিশ্ব উষ্ণায়নকেই দায়ী করেছেন।

জো বাইডেন বলেছেন, ‘‘যা করার এখনই করতে হবে। এখন থেকে সতর্ক না হলে পশ্চিমাংশের মতোই অবস্থা হবে গোটা দেশের। প্রচুর পরিবার পথে এসে দাঁড়াবে।’’

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *