পরাজয়ের পর বোনের আত্মহননের ঘটনায় শোকে কাতর ফোগাট বোনেরা

Phogat

Mysepik Webdesk: ভারতের তারকা মহিলা কুস্তিগীর ববিতা ফোগাট এবং গীতা ফোগাটের মামাতো বোন রীতিকা ফোগাট কুস্তি টুর্নামেন্টে ম্যাচ হেরে আত্মহত্যা করেছে। কমনওয়েলথ গেমস ২০১০-এ মহিলা কুস্তিতে ভারতের প্রথম স্বর্ণপদক জয়ী গীতা ফোগাট তাঁর বোনের এই পদক্ষেপে গভীরভাবে দুঃখিত। তিনি বলেন যে, “জয়-পরাজয় একজন খেলোয়াড়ের জীবনের অঙ্গ এবং কোনও খেলোয়াড়ের এমন পদক্ষেপ নেওয়া উচিত নয়।”

আরও পড়ুন: অবমাননাকর মন্তব্যের জেরে পদত্যাগ টোকিও অলিম্পিকের চিফ ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টরের

গীতা ফোগাট টুইটারে লিখেছেন, “ঈশ্বর আমার ছোট বোন রীতিকার আত্মার শান্তি দিন। এটা আমার পরিবারের জন্য দুঃখের মুহূর্ত। রীতিকা খুব প্রতিশ্রুতিমান রেসলার ছিলেন। একটা ম্যাচ হেরে গিয়ে ও কেন এমন পদক্ষেপ নিল, তা আমি জানি না। হার-জিত খেলোয়াড়ের জীবনের একটি অঙ্গ। আমাদের এমন কোনও পদক্ষেপ নেওয়া উচিত নয়।”

রাজস্থানের ভরতপুরের লোহাগড় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত স্টেট লেভেল সাব জুনিয়র টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিলেন ১৭ বছর বয়সি রীতিকা। এই টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত ম্যাচে রীতিকা এক পয়েন্টে হেরে যান। এই পরাজয়ের ফলে হতাশ হয়ে গলায় দড়ি দিয়ে নিজের জীবন বিসর্জন দেয় এই কিশোরী রেসলার।

আরও পড়ুন: বসফরাস বক্সিং টুর্নামেন্টে ভারতীয়দের জয়জয়কার, কোয়ার্টার ফাইনালে একঝাঁক

https://twitter.com/PhogatRitu/status/1372412947406884864?s=20

জানা গিয়েছে যে, বুধবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে রীতিকা আত্মহত্যা করে। তার কাকা এবং দ্রোণাচার্য পুরস্কার জয়ী কোচ মহাবীর ফোগাটের কাছে কুস্তির প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন। ফাইনাল ম্যাচ চলাকালীন মহাবীরও উপস্থিত ছিলেন।

ঋতু ফোগাটও রীতিকার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি টুইটারে লিখেছিলেন, “ঈশ্বর ছোট বোন রীতিকার আত্মার মঙ্গলসাধন করুন। তোমার সঙ্গে যা ঘটেছে, তা আমি এখনও বিশ্বাস করতে পারি না। তোমায় সবসময় আমরা স্মরণ করব।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *