Latest News

Popular Posts

দুর্ঘটনায় মৃত বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে রাজ্যের মন্ত্রী, চিকিৎসার দায়িত্ব নিল সরকার

দুর্ঘটনায় মৃত বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে রাজ্যের মন্ত্রী, চিকিৎসার দায়িত্ব নিল সরকার

Mysepik Webdesk: নিমতৌড়ির কাছে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল কলকাতা পুরসভার ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলর তিস্তা বিশ্বাসের। ঘটনায় গুরুতর আহত হন তিস্তাদেবীর মেয়ে৷ গাড়িতে থাকা তিস্তাদেবীর স্বামীরও আঘাত লাগে৷

আরও পড়ুন: ফিরলো পুরোনো স্মৃতি, করোনা নিয়ন্ত্রণে দক্ষিণ শহরতলিতে আগামী তিনদিন লকডাউন

শোকপ্রকাশ করেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সূত্রের খবর, তাঁরই ব্যবস্থাপনায় কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে তিস্তাদেবীর স্বামী ও মেয়েকে ভরতি করা হয়েছে। এদিকে খবর পেয়ে রাতেই তিস্তার গড়চার বাড়িতে যান পুরমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও বিধায়ক দেবাশিস কুমার। পরে চন্দ্রিমা জানান, “অবন্তিকাই প্রথম বাড়িতে ফোন করে পিসিকে দুর্ঘটনার খবর জানিয়েছে। রাজ্য সরকার মৃত কাউন্সিলরের স্বামী ও কন্যাকে চিকিৎসা ও অন্যান্য সাহায্য দেওয়ার কথা জানিয়েছে।” বৃহস্পতিবারই তিস্তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হওয়ার কথা বলে খবর।

আরও পড়ুন: ফের ভাঙ্গন বিজেপিতে, ঘাসফুল শিবিরে যোগ দিলেন রায়গঞ্জের বিধায়ক

জানা গিয়েছে, পূর্ব মেদিনীপুরের হেঁড়িয়ার একটি কলেজ থেকে এমএড-এর সার্টিফিকেট নিয়ে গাড়িতে স্বামী ও মেয়ের সঙ্গে ফিরছিলেন তিস্তাদেবী৷ ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কের উপরে নিমতৌড়ির কাছে রাস্তার উপরেই একটি লরি খারাপ হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল৷ সেই লরিটির পিছনে এসে দাঁড়ায় তিস্তাদেবীদের গাড়ি৷ তখনই পিছন থেকে একটি তেলের ট্যাঙ্কার সজোরে তিস্তাদেবীদের গাড়িতে ধাক্কা মারে৷ যার ফলে দুমড়ে মুচড়ে যায় গাড়িটি৷

মৃতার স্বামী গৌরব তমলুক হাসপাতালে পুলিশকে জানিয়েছেন, “একটি অয়েল ট্যাঙ্কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এসে প্রবল গতিতে আমাদের গাড়িতে ধাক্কা মারে। প্রবল ধাক্কায় গাড়িটি দুমড়ে—মুচড়ে যায়, আটকে পড়ি আমরা। পিছনের সিটে ছিল তিস্তা।” তিস্তা—সহ তিনজনকেই উদ্ধার করে পুলিশই তমলুক হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নিয়ে আসার পর চিকিৎসকরা পুর কো—অর্ডিনেটরকে মৃত ঘোষণা করে। পুলিশের দাবি, ঘটনাস্থলেই বিদায়ী কাউন্সিলরের মৃত্যু হয়েছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *