রাজ্যের লিখে দেওয়া ভাষণ পড়তে বাধ্য করা হয়েছে রাজ্যপালকে, বিধানসভার অধিবেশন প্রসঙ্গে জানান শুভেন্দু

Mysepik Webdesk: বিধানসভার অধিবেশনে পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী দুপুর ২টো নাগাদ ভাষণ দিতে শুরু করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। কিন্তু তাঁর বক্তৃতা শুরু হতেই বিধানসভার ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ প্রদর্শন শুরু করেন বিজেপি বিধায়করা। গোটা সভাকক্ষে ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান ওঠে। সম্পূর্ণ ভাষণ শেষ না করে মাত্র চার মিনিটের মাথায় তাঁকে তাঁর ভাষণ থামাতে হয়। সম্ভবত তিনি তাঁর সম্পূর্ণ ভাষণ শেষ করতে পারেননি। এরপরেই তাঁকে বিধানসভার কক্ষ ত্যাগ করতে দেখা যায়। তাঁকে প্রটোকল মেনে বিদায় জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপালের সভাগৃহ ত্যাগ করার পর একে একে বিধানসভার কক্ষ ত্যাগ করেন বিজেপি বিধায়করাও।

আরও পড়ুন: মাত্র চার মিনিটেই থমকে গেল রাজ্যপালের ভাষণ, বিধানসভা বাজেট অধিবেশন শুরুতেই তুমুল হট্টগোল

এই প্রসঙ্গে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “বিধানসভার এই ঘটনার তীব্র বিরোধিতা করছি আমরা, কারণ, রাজ্যের তৈরি করা ভাষণ দিতে বাধ্য করা হয়েছে রাজ্যপালকে। তাঁর ভাষণে রাজ্যে ভোট-পরবর্তী অশান্তির ঘটনার কোনও উল্লেখ নেই। রাজ্যপাল ব্যক্তিগতভাবে অত্যন্ত সংবেদনশীল। তিনি বারবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সরব হয়েছেন।” তিনি আরও বলেন, “রাজ্যপালকে যে ভাষণ লিখে দেওয়া হয়েছে, আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। রাজ্যপাল কেন পুরো ভাষণ পাঠ করেননি, তা তিনিই বলতে পারবেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *