Latest News

Popular Posts

ঘাসফুল শিবিরের ফেসবুক পেজ থেকে সরিয়ে নেওয়া হল ‘বিতর্কিত’ প্রথম প্রার্থী তালিকা

ঘাসফুল শিবিরের ফেসবুক পেজ থেকে সরিয়ে নেওয়া হল ‘বিতর্কিত’ প্রথম প্রার্থী তালিকা

Mysepik Webdesk: পুরভোটের জন্য তৃণমূল কংগ্রেস ঘোষণা করেছিল তাদের প্রথম প্রার্থী তালিকা। যা নিয়ে দলীয় তুলকালাম শুরু হয়েছিল। কিন্তু আজ, শেষমেশ তৃণমূলের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে সেই বিতর্কিত প্রথম প্রার্থী তালিকাটি তুলে নেওয়া হল। ২৮ জানুয়ারি এই তালিকা সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের দেখানো হয়েছিল। যদিও তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়নি ওই তালিকা। ওইদিন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক সম্মেলন করে ঘোষণা করেছিলেন ১০৭টি ওয়ার্ডের প্রার্থী তালিকা। এর ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই দলের ফেসবুক পেজে প্রকাশ করা হয় পুরসভার প্রার্থী তালিকা।

আরও পড়ুন: কেন হয়েছিল ময়নাগুড়ির ট্রেন দুর্ঘটনা? চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট সিআরএস -এর

এই প্রার্থী তালিকা নিয়ে রীতিমতো মুষলপর্ব শুরু হয় তারপর। প্রকাশ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল দলীয় বিদ্বেষ। এরপর পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, ফেসবুক পেজে প্রকাশিত প্রার্থী তালিকা সঠিক নয়। কারণ হিসেবে তিনি দেখান যে, ওই তালিকায় কারোরই সই নেই। বিক্ষোভের আঁচ যখন ক্রমশ ছড়িয়ে পড়েছিল, তখন পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং সুব্রত বক্সির সই-সহ আরও একটি তালিকা জেলাস্তর থেকে প্রকাশ করে ঘাসফুল শিবির। সঙ্গে থাকে রাবারস্ট্যাম্পও। এই ঘটনা ঘিরে দলীয় কলহ মোটেও কমেনি। ফিরহাদ হাকিমের মতো দুঁদে নেতাকে এরপর ড্যামেজ কন্ট্রোলে এগিয়ে আসতে হয়। ‘ফেসবুক অ্যাকাউন্টের অপব্যবহার হচ্ছে’ বলে ফিরহাদ নাম না করে ইঙ্গিত করেন আইপ্যাকের দিকেই।

আরও পড়ুন: দেবের পর অনুব্রত মন্ডল, গরু পাচারকাণ্ডে তলব CBI -এর

এরপর গতকাল, শনিবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের নেতাদের মতামত প্রকাশ নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে দেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় খেয়ালখুশিমতো বক্তব্য প্রকাশ করে দলকে যে অস্বস্তিতে ফেলা যাবে না, একথা ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। সামাজিক মাধ্যমের চেয়ে দলীয় নেতারা সংগঠনের কাজে যাতে বেশি করে মনোযোগী হন, সে-কথাও বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, মুখ্যমন্ত্রীর এমন নির্দেশের পরেই অত্যন্ত অর্থবহভাবে বিতর্কিত প্রথম প্রার্থী তালিকাটি ফেসবুক পেজ থেকে তুলে নেওয়া হল। উল্লেখ্য, সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের ফেসবুক পেজটির দেখভাল করত আইপ্যাক। যদিও সম্প্রতি এই দায়িত্ব থেকে ছুটি করে দেওয়া হয়েছে তাদের।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *