Latest News

Popular Posts

পরবর্তী লক্ষ্য ৯০ মিটারের রেকর্ড গড়া, জানালেন নীরজ চোপড়া

পরবর্তী লক্ষ্য ৯০ মিটারের রেকর্ড গড়া, জানালেন নীরজ চোপড়া

Mysepik Webdesk: ৮৭.৫৮ মিটার থ্রো করে ভারতকে জ্যাভলিনে সোনা এনে দিয়েছেন নীরজ চোপড়া। অলিম্পিকের ইতিহাসে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে ভারতকে প্রথম সোনা এনে দিয়েছেন তিনি। কীভাবে এই সাফল্য এসেছে? শনিবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলন করে তিনি তাঁর বিজয়ের মন্ত্রের কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘‘আমি প্রথমেই ভেবেছিলাম যে আমার প্রথম কয়েকটি থ্রোর মধ্যেই সেরাটা আসা উচিত। এটা করতে অন্য খেলোয়াড়দের ওপর চাপ পড়ে। দ্বিতীয় থ্রো করার সঙ্গে সঙ্গেই আমি জানতাম এটিই সেরা।”

আরও পড়ুন: জ্যাভলিনে ১০০ বছরের ইতিহাসে দেশকে প্রথম সোনা এনে দিলেন নীরজ চোপড়া

তিনি আরও বলেন, ‘‘জার্মান অ্যাথলেট জোহানেস ওয়েটারের মতো একজন বিশ্বমানের পারফরমার ছিল, কিন্তু তিনি আজকের খেলায় তেমন ভালো পারফরম্যান্স করতে পারেননি। আমি দুঃখিত যে, একজন বিশ্বমানের খেলোয়াড় এভাবে পরাজিত হয়েছেন। তিনি আমার সম্পর্কে বলেছিলেন যে, তাঁর কাছাকাছি পৌঁছতে আমার অনেক সময় লাগবে, কিন্তু আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। আমি কেবল আমার সেরাটা দেওয়ার কথাই ভেবেছি। এখন আমি আরও কঠোর পরিশ্রম করব এবং ৯০ মিটারের রেকর্ড গড়ার চেষ্টা করব।”

আরও পড়ুন: অদিতি অশোক: মেডেল না জিতেও যিনি ইতিহাসে স্থান করে নিলেন

তিনি জানিয়েছেন যে, সোনা জেতার পরে চারিদিক থেকে আসা অভিনন্দনের মাঝে তিনি এতটাই ব্যস্ত ছিলেন যে, রাত ৯টা পর্যন্ত তিনি তাঁর পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে পারেননি। কিন্তু, তিনি তাঁর গ্রামের সেলিব্রেশনের কিছু ভিডিয়ো দেখেছেন। ভিডিয়োও সবাইকে নীরজের সোনা জয়ের আনন্দে নাচতে দেখা যায়। নীরজ এরপর বলেন, ‘‘জ্যাভলিন একটি টেকনিক্যাল ইভেন্ট। সেখানে যদি সামান্য টেকনিক্যাল ভুল হয়, তাহলে পুরো খেলাটাই পণ্ড হয়ে যেতে পারে। কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে। এর জন্য মনোনিবেশ করা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কোচের পরামর্শ মেনে অনেক ওয়ার্কআউট করেছি। আমি পছন্দ করি তা করতে। ট্রেনিংয়ের ওপর পুরো ফোকাসড ছিলাম। এই সোনা, বহু বছরের কঠোর পরিশ্রমের ফল।”

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *