দূরপাল্লার ট্রেনে বাড়ছে এসি কোচ, কমবে স্লিপার কোচের সংখ্যা

Mysepik Webdesk: দূরপাল্লার ট্রেনে স্লিপার কোচের সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় রেল। তার পরিবর্তে আরও বাড়ানো হতে চলেছে এসি কোচের সংখ্যা। ভারতীয় রেল সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। স্লিপার কোচের সংখ্যা কমিয়ে পরিবর্তে এসি থ্রি টিয়ার ইকোনমি ক্লাস জুড়ে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। আরসিএফ দ্বারা ডিজাইন করা ট্রেনের এই কামরাগুলিতে রয়েছে একাধিক চমকপ্রদ বৈশিষ্ট। ভারতীয় রেলের দাবি, এই ট্রেন বিশ্বমানের ভ্রমণের অভিজ্ঞতা দেবে যাত্রীদের। শুধু ভারতীয় যাত্রীই নয়, বিশ্বের যেকোনও প্রান্তের পর্যটকদের এক অভিনব অভিজ্ঞতা এনে দেবে এই ট্রেনের বিশেষ কোচ। নতুন এই ধরনের কোচ তৈরি হচ্ছে পাঞ্জাবের কাপুরথালা রেল কোচ ফ্যাক্টরিতে।

আরও পড়ুন: মোটেই নিরাপদ নয় কোভিশিল্ড, মন্তব্য মাদ্রাজ হাইকোর্টের

Image result for three tier economy class

রেলের রিসার্চ ডিজাইনস অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস অর্গানাইজেশন নতুন ডিজাইনের কোচ পরীক্ষা করে তবেই বাজারে ছাড়ার অনুমতি দেয়। প্রাথমিকভাবে এই কোচ সংখ্যায় অল্প কয়েকটি তৈরি হলেও পরে অনুমতি মেলার পর চলতি বছরে আরও আড়াইশো এই ধরনের কোচ তৈরি করবে কাপুরথালার কোচ ফ্যাক্টরি। এই কোচে যাত্রীরা আরও বেশি সংখ্যায় ভ্রমণ করতে পারবেন বলে রেলের আয় বৃদ্ধি পাবে। ফলে যাত্রীদের আরও কম পয়সায় উন্নতমানের পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হবে বলে দাবি করেছে ভারতীয় রেল।

আরও পড়ুন: পয়লা এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে কুম্ভমেলা, রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক করোনা রিপোর্ট

Image result for three tier economy class

সম্পূর্ণ বাতানুকূল এই কোচে রয়েছে মোট ৮৩টি বার্থ, যা আগের চেয়ে আরও ১১টি বেশি। যাত্রীদের জন্য ঝাঁ চকচকে বাথরুমের ব্যবস্থা রয়েছে এই ট্রেনের কামরায়। শুধু তাই নয়, এই ট্রেনে প্রতিবন্ধী যাত্রীদের জন্য রয়েছে বিশেষ বাথরুমের ব্যবস্থাও। দুর্ঘটনার ফলে যাত্রীরা যাতে বেশিমাত্রায় জখম হয়ে না যান, তার জন্য সিট,বার্থের নকশা এবং ফোল্ডেবল স্ন্যাক টেবিলগুলির নকশায় পরিবর্তন ঘটনা হয়েছে। উচ্চ ভোল্টেজ বৈদ্যুতিক সুইচ গিয়ার স্থানান্তরিত করার ফলে প্রতিটি কোচে আরও বেশি বার্থ যুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। ট্রেনে রয়েছে দেশি ও বিদেশি এই দুই ধাঁচের টয়লেট। একটি সাধারণ সকেটের পাশাপাশি প্রতিটি বার্থে রয়েছে পৃথক চার্জিং পয়েন্টার ব্যবস্থা। অন্ধকারে পড়ার জন্য থাকছে রিডিং লাইটের ব্যবস্থাও। ট্রেনের কোচের মধ্যে অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা আগের চেয়ে আরও উন্নতমানের করা হয়েছে। দুটি বার্থের মধ্যে স্থান বৃদ্ধি করা হয়েছে। ইনফরমেশন সিস্টেম প্রযুক্তির মাধ্যমে যাত্রী স্বাচ্ছন্দের দিকে নজর দেওয়া হয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *