সিইএসসির ‘অস্বাভাবিক’ ইলেকট্রিক বিলের কোপে খোদ রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী

Mysepik Webdesk: সিইএসসির বাড়তি বিলের বোঝা আমজনতার ঘাড়ে। বাদ গেল না খোদ রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও। এবার তাঁর বাড়িতেও ১১,০০০ টাকার বিল পাঠাল সিএসইসি! স্বাভাবিকভাবেই অবাক বিদ্যুৎমন্ত্রী বলেন, “বিদ্যুৎ প্রদানকারী সংস্থা হয়তো গত দু’মাস রিডিং নেয়নি। কিন্তু ১১,০০০ টাকা বিল আসার পর আমি রীতিমতো অবাক হয়ে যাই। এটা অস্বাভাবিক এবং মাত্রাতিরিক্ত। বছরের এই সময় আমার বাড়িতে সাধারণত ৭,০০০ টাকার মতো বিল হয়।”

আরও পড়ুন: ২৩ রকমের নিউমোনিয়ার হাত থেকে সুরক্ষা প্রদানকারী প্রতিষেধকের আবিষ্কার ভারতে

শুধু তাই নয়, লকডাউন চলার কারণে গত দু’তিন মাস ধরে বাড়িতে বাড়িতে মিটার রিডিং নিতে আসছেন না সিইএসসি কর্মীরা। অভিযোগ, শুধুমাত্র গড় হিসেবে বিল পাঠানো হয়েছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে, স্বাভাবিক বিলের থেকে বেশ কয়েক গুন পর্যন্ত বাড়িয়ে বিল পাঠানো হয়েছে বিদ্যুত সরবরাহ সংস্থার তরফ থেকে। বিদ্যুৎমন্ত্রী নিজেই জানিয়েছিলেন, মাত্রাতিরিক্ত বিল নিয়ে তিনি রোজই অভিযোগ পাচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন, এই ঘটনায় তিনি বিদ্যুৎ প্রদানকারী সংস্থার শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গেও কথা বলেছেন।

আরও পড়ুন: সাতসকালেই ভূমিকম্পে কাঁপল ভূস্বর্গ

সিইএসসির দাবি, লকডাউন ও আমফান বিপর্যয়ের কারণে অনেক জায়গায় কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে রিডিং নিতে পারেননি। তাই গড় হিসেবে বিল পাঠানো হয়েছে। এই প্রসঙ্গে সংস্থার এই শীর্ষ আধিকারিকের কথায়, “নির্দিষ্ট নির্দেশিকার ভিত্তিতে আমরা প্রাথমিকভাবে কম বিল পাঠিয়েছিলাম যা গত ছ’মাসের বিলের ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছিল। শীতকালের জন্য প্রাথমিকভাবে বিল কম ছিল। এখন সেটা ঠিক করা হয়েছে।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *