কাল শুরু দ্বিতীয় টেস্ট, সমর্থকদের উন্মাদনা তুঙ্গে, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং শিকেয়

India

Mysepik Webdesk: আগামীকাল থেকে চেন্নাইয়ের চিপক স্টেডিয়ামে ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে। এখানে লাল এবং কালো মাটির দু’টি পিচ রয়েছে। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে, কালো মাটির পিচে আয়োজিত হবে দ্বিতীয় টেডিট। এই ম্যাচ আরও একটি কারণে গুরুত্বপূর্ণ। দ্বিতীয় টেস্টের মাধ্যমে দর্শকরাও স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখতে হাজির হবেন গ্যালারিতে। করোনাকালে এই প্রথমবার দেশের মাটিতে তাঁদের প্রিয় দলকে মাঠে এসে সমর্থন করতে পারবেন। সুতরাং দ্বিতীয় টেস্টকে ঘিরে সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা রয়েছে তুঙ্গে। এদিন সকাল থেকেই তাঁদের দেখা গেল টিকিটের জন্য স্টেডিয়াম চত্বরে জড়ো হতে। বলাই বাহুল্য যে, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিংয়ের কোনও বালাই ছিল না।

আরও পড়ুন: এক বছরে ষষ্ঠ শিরোপা হিসাবে ক্লাব বিশ্বকাপ জিতল বায়ার্ন মিউনিখ

সিরিজে আপাতত ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে রয়েছে বিরাট-ব্রিগেড। সিরিজে সমতায় ফিরতে গেলে প্রথম একাদশে পরিবর্তন আনা দরকার। ইতিমধ্যেই অক্ষর প্যাটেল ফিট হয়ে উঠেছেন। শাহবাজ নাদিম যে বাদ পড়তে চলেছেন, সেটা বোঝাই যাচ্ছে। তবে প্রশ্ন হচ্ছে, নাদিমের পরিবর্তে কুলদীপ নাকি অক্ষর, খেলবেন কে?

চেন্নাইয়ের ঐতিহ্যবাহী লাল মাটির পিচ ভারতীয় দলের জন্য মারাত্মক প্রমাণিত হয়েছিল। বোলাররাও এ-নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। টানা পাঁচটি পিচের প্রথম টেস্ট ম্যাচের পিচটি ছিল ২ নম্বরে। পিচ নম্বর ফাইভের উপরে ঘাসের আচ্ছাদন ছিল, যা দ্বিতীয় ম্যাচের জন্য ব্যবহার করা হতে পারে। এই পিচের ওপরের পৃষ্ঠে কালো মাটি রয়েছে। এটি প্রথম ম্যাচের চেয়ে বেশি বাউন্স করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এত কিছুর মাঝেও ভারতীয় দলটি জানে যে, তারা ইতিমধ্যে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে চতুর্থ স্থানে নেমে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: রানার হিমা দাসকে দেখা যাবে পুলিশ ইউনিফর্মে, অসমের ডিএসপি পদে নিযুক্ত ‘ধিং এক্সপ্রেস’

ফাইনালে ওঠার জন্য বাকি তিনটি টেস্টে কেবল ভালো পারফরম্যান্সই নয়, ইতিবাচক ফলাফল দরকার। এদিকে ব্রিটিশ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান বাটলার ইংল্যান্ডে ফিরেছেন। তাঁর জায়গায় দলে আসতে পারেন বেন ফোকস। দ্রুত গতির বোলার জোফরা আর্চারও ইনজুরির পর দলের বাইরে। স্টুয়ার্ট ব্রড দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে পারেন।

এদিকে, দর্শকদের সিসিটিভি ক্যামেরায় নজরদারি করা হবে। তামিলনাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি রামাস্বামী জানিয়েছেন যে, প্রতি দু’জনের মধ্যে একটি করে আসন খালি থাকবে। সামাজিক দূরত্ব নিরীক্ষণের জন্য সিসিটিভি ক্যামেরাও বসানো হয়েছে। দর্শকরা কেবল স্টেডিয়ামের ভিতরে মোবাইল নিয়ে যেতে পারবেন। বল স্ট্যান্ডে যাওয়ার পরে আম্পায়ার তা স্যানিটাইজ করবেন। প্রত্যেক দর্শকের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হবে। স্টেডিয়ামে ঢোকার ১৭টি গেটে চলবে এই টেস্ট। সবমিলিয়ে চিপক স্টেডিয়াম টেস্ট ম্যাচের আগেই বেশ জমজমাট।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *