Latest News

Popular Posts

নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া রাজস্থানে! ধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে প্রবেশ করানো হল ধারালো বস্তু

নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া রাজস্থানে! ধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে প্রবেশ করানো হল ধারালো বস্তু

Mysepik Webdesk: ফের নির্ভয়া কাণ্ডের পুনরাবৃত্তিতে স্তম্ভিত গোটা দেশ। এবারের ঘটনা রাজস্থানে। জানা গিয়েছে, রাজস্থানের আলোয়ারে এক নাবালিকাকে গণধর্ষণ করার পর তার গোপনাঙ্গে একটি ধারালো বস্তু প্রবেশ করানো হয়। এখানেই থিম থাকেনি পৈচাশিক অত্যাচার। পাশবিক অত্যাচারের পর ওই নাবালিকাকে তিজারা উড়ালপুলের ওপর থেকে নিচে ফেলে দেওয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার ওই ব্রিজের নিচ থেকে নাবালিকাকে মারাত্মক জখম অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নাবালিকার শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। জানা গিয়েছে, নির্যাতিতার মা ও বাবা দিনমজুরের কাজ করেন। তার এক ভাই ও এক বোন রয়েছে।

আরও পড়ুন: ভারতীয় সমুদ্রের নজরদারির জন্য রাফালে মেরিন এবং F/A-18 সুপার হর্নেটের মধ্যে হবে প্রতিযোগিতা

বুধবার ওই নাবালিকার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে জয়পুরের JK Lon হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে নাবালিকার অস্ত্রোপচার করার পর তার রক্তক্ষরণ বন্ধ করা সম্ভব হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নাবালিকার গোপনাঙ্গে ওই ধারালো বস্তু প্রবেশ করানোর ফলে তার অঙ্গপ্রত্যঙ্গ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। আপাতত তাকে হাসপাতালের ICU তে ২৪ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এখনও সে সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত নয়। তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে বড় চমক কংগ্রেসের, প্রার্থী তালিকায় উন্নাওয়ে ধর্ষিতার মা

ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রাজস্থানের পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, যেখানে মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়েছে, তার আশেপাশে ২৫ কিলোমিটারের মধ্যে অন্তত ৩০০টি CCTV ক্যামেরা রয়েছে। ওই ক্যামেরাগুলিতে ভিডিও ফুটেজে সংগ্রহ করে অপরাধীদের সনাক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে, এখনও পর্যন্ত কোনও অপরাধীকে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এই ঘটনার পর রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট মুখ্যমন্ত্রী তহবিল থেকে নির্যাতিতার পরিবারকে ৬ লাখ টাকা অর্থ সাহায্য করার ঘোষণা করেছেন। পাশাপাশি ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *