নতুন করে পরীক্ষা নিতে হবে, TET নিয়ে ফের সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা রাজ্যের

Mysepik Webdesk: রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় ফের সুপ্রিমকোর্টে ধাক্কা খেলো রাজ্য সরকার। সোমবার দেশের সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশ, ফের নতুন করে TET পরীক্ষা নিতে হবে। যারা D.Led শেষ করেছে অথচ ২০১৭ সালের TET পরীক্ষায় বসতে পারেননি, তাদের ফের পরীক্ষায় বসার জন্য নতুন করে নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি আব্দুর নাজির ও বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারির ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে। নতুন করে পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি এদিন ডিভিশন বেঞ্চ পরীক্ষা নেওয়ার সময়সীমাও ধার্য করে দিয়েছে। আগামী বছর অর্থাৎ ২০২২ সালের ৩১ মার্চের মধ্য়ে ওই পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন: মাত্র ৫ দিনেই ৮ হাজার আবেদন জমা পড়েছে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি রাজ্যে প্রাথমিকের টেট বা টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট দিয়েছিলেন আড়াই লক্ষ চাকরিপ্রার্থী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও জানিয়েছিলেন, দুর্গাপুজোর আগেই রাজ্যে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে। কিন্তু সেই TET পরীক্ষাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে চাকরিপ্রার্থীরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাদের দাবি ছিল, টেট ২০১৭ পরীক্ষার জন্য হয়েছিল ২০১৭ সালে, ফর্ম ফিলাপও সেই সময়ে শেষ হয়ে যায়, কিন্তু পরীক্ষাটা নেওয়া হয় ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে। মাঝে কোনও পরীক্ষা হয়নি। কিন্তু NCTE-এর নিয়ম অনুযায়ী প্রতিবছর TET পরীক্ষা নেওয়ার কথা। কিন্তু তা হয়নি। অর্থাৎ মাঝের এই ৪ বছরে যারা প্রশিক্ষিত হল, তাদেরও পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হোক।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *