Latest News

Popular Posts

বায়ুদূষণ নিয়ে দিল্লি সরকারকে ২৪ ঘণ্টা সময়সীমা বেঁধে দিল সুপ্রিম কোর্ট

বায়ুদূষণ নিয়ে দিল্লি সরকারকে ২৪ ঘণ্টা সময়সীমা বেঁধে দিল সুপ্রিম কোর্ট

Mysepik Webdesk: বায়ুদূষণ নিয়ে বৃহস্পতিবার দিল্লি সরকারকে তীব্র ভৎসনা করল সুপ্রিম কোর্ট। এদিন ভারতের সর্বোচ্চ আদালত রীতিমতো ভৎসনা করে দিল্লি সরকারকে দূষণ নিয়ন্ত্রণের জন্য ২৪ ঘন্টা সময়সীমা বেঁধে দিল। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, ২৪ ঘন্টার মধ্যে দিল্লির বায়ুদূষণ কীভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়, তার পরিকল্পনা করতে হবে। এদিন কেজরিওয়াল সরকারকে তীব্র ভর্ৎসনা করে শীর্ষ আদালত প্রশ্ন করেছে, এই পরিস্থিতিতে পড়ুয়াদের স্কুলে যেতে কেন বাধ্য করা হচ্ছে। যদি ওয়ার্ক ফ্রম হোম হতে পারে তাহলে বাড়িতে অনলাইন ক্লাস কেন করানো হচ্ছে না।

আরও পড়ুন: অবশেষে স্বস্তি! বিদেশ থেকে মহারাষ্ট্রে ফেরত ব্যক্তিদের শরীরে নেই ওমিক্রন

দীপাবলির পর থেকেই দিল্লির বাতাসে ছড়িয়েছে প্রবল দূষণ। এমনকি, শ্বাস নেওয়াও হয়ে উঠেছে কষ্টকর। প্রতি বছরই শীতকাল জুড়ে দিল্লির বাতাস দূষিত হয়ে ওঠে। তার প্রধান কারণ হল আশপাশের রাজ্যের শুকনো ফসল পোড়ানো। এই বিষয় নিয়ে প্রতি বছরই আশেপাশের রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। কিন্তু, তাতেও কোনও সুরাহা মেলে না। এমনকি, বাজি পোড়ানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেও তিনি দিল্লির বায়ুদূষণ রোধ করতে পারেননি। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়।

আরও পড়ুন: দুটি ডোজের সার্টিফিকেট নয়, মহারাষ্ট্রে যেতে হলে বাধ্যতামূলক আরটিপিসিআরের নেগেটিভ রিপোর্ট

দিল্লি সরকারকে এই বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আগে থেকেই নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। বিচারপতিরা একাধিকবার এই নিয়ে উষ্মাও প্রকাশ করেছিলেন। বৃহস্পতিবার মামলার শুনানিতে এই নিয়ে দিল্লি সরকারকে তীব্র ভর্ৎসনা করে সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আগামিকাল সকাল ১০টার সময় মামলার শুনানি হবে। সেই সময় দিল্লি সরকারকে জানাতে হবে, দূষণ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকার কী কী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *