উত্তর কোরিয়াকে মোক্ষম জবাব দিতে আজ রাষ্ট্রসংঘে গুরুত্বপূর্ণ সভা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের

Mysepik Webdesk: বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়া তার পূর্ব উপকূলে দু’টি শর্ট রেঞ্জ মিসাইল পরীক্ষা করেছে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র একে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রয়োগের মাধ্যমে উপদ্বীপকে অস্থিতিশীল করার প্রচেষ্টা বলে অভিহিত করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে যে, এটি রাষ্ট্রসংঘের সিকিউরিটি কাউন্সিল কর্তৃক গৃহীত প্রস্তাবের সরাসরি লঙ্ঘন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, এ জাতীয় পদক্ষেপ পুরো অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলবে এবং একইসঙ্গে আন্তর্জাতিক বিশ্বে একটি ভুল বার্তা দেবে। রাষ্ট্রসংঘের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে আজ উত্তর কোরিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।

আরও পড়ুন: ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা উঃ কোরিয়ার, আমেরিকাকে হুমকি?

দক্ষিণ কোরিয়া নিউজ এজেন্সি আমেরিকার প্রতিরক্ষা বিভাগের একটি ইমেলে লিখেছে যে, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র কোরিয়া ও জাপানের সুরক্ষার জন্য প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে। এতে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়া অবৈধভাবে পারমাণবিক ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। উত্তর কোরিয়ার সুপ্রিমো কিমের এই পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক শান্তি ও সুরক্ষার জন্য হুমকিস্বরূপ।

আরও পড়ুন: করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করতে গিয়ে ক্যানসার মুক্তির নিদান পেলেন জার্মান বিজ্ঞানী দম্পতি, বছর দুই পর মিলতে পারে ক্যানসারের ভ্যাকসিন!

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা বলেছিলেন যে, উত্তর কোরিয়া চলতি সপ্তাহান্তে শর্ট রেঞ্জ মিসাইল পরীক্ষা করেছে, এটি ক্রুজ মিসাইল (North Korea Fires Two Ballistic Missiles) বলে মনে করা হচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারমাণবিক আলোচনায় অচলাবস্থার মধ্যে উত্তর কোরিয়া এই পরীক্ষা চালিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ২০১৯-এর ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলন ব্যর্থ হওয়ার পর থেকে এই অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে।

আরও পড়ুন: বলিভিয়ার কর্পোরেট পন্থী প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জেনাইন আনেজ গ্রেপ্তার

তাৎপর্যপূর্ণভাবে, বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়া তার নতুন ট্যাকটিক্যাল গাইডেড মিসাইল পরীক্ষা করেছে। এগুলি ছিল শর্ট রেঞ্জ ব্যালিস্টিক মিসাইল। পরে উত্তর কোরিয়া থেকে জারি করা বিবৃতিতে এটি নিশ্চিত করা হয়েছে। মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্রদের সতর্ক করে বলেছে যে, উত্তর কোরিয়ার এইভাবে উত্তেজনা ছড়ানোর বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া দেওয়া উচিত। সূত্রের খবর, আমেরিকা তাদের সমস্ত অংশীদার দেশগুলির সঙ্গে এটি নিয়ে আলোচনা করেছে।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *