কাবুল বিমানবন্দরে তুর্কি সেনাদের মানবিকতার দৃশ্যে মুগ্ধ বিশ্ববাসী

Mysepik Webdesk: তালিবান দখলে চলে যাওয়ার পর আফগানিস্তানে এখন বিশৃঙ্খল পরিবেশ বিরাজ করছে। কয়েকটি ছোট জেলা বাদ দিয়ে গোটা দেশ দখল করে নিয়েছে তালিবান। কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বাইরে এখন হাজার হাজার নারী ও শিশু তাদের পরিবারের সঙ্গে দাঁড়িয়ে রয়েছে। তারা অপেক্ষা করছে যে, কোন দেশ তাদের প্রতি করুণার দৃষ্টিতে তাকাবে এবং তাদের দেশে আশ্রয় দেবে। তবে এরই মধ্যে বিমানবন্দর থেকে এমন একটি দৃশ্য প্রকাশ্যে এসেছে, যা বিশ্ববাসীর মনজয় করে নিয়েছে।

আরও পড়ুন: ৫৬টি ইসলামি দেশের মধ্যে তালিবানের সঙ্গে রয়েছে একমাত্র পাকিস্তান

শুক্রবার তুর্কি সেনারা বিমানবন্দরের কাছে অবস্থান করছিল। সেখানে তাঁরা দেখতে পান একজন তাঁর দু’মাসের কন্যাসন্তানকে নিয়ে এদিক-ওদিক ইতস্ততভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছে। শিশুটি খিদেয় কষ্ট পাচ্ছিল। জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা গেল, ওই ব্যক্তির নাম ফারিশতা রহমানি। আর শিশুটির নাম হাদিয়া রহমানি। তালিবানের ভয়ে পালানো সেই মানুষটি পিছনে ফেলে এসেছেন তাঁর স্ত্রী আলি মুসা রহমানিকে। সে-এক করুণ বাস্তব। মায়ের কোল থেকে বঞ্চিত হয়ে কাবুল বিমানবন্দরে পৌঁছনো বাবাকেই যেন আঁকড়ে ধরে ছিল শিশুকন্যাটি।

আরও পড়ুন: তালিবানে আতঙ্কিত প্রথম আফগান মহিলা পাইলট নিলুফার বললেন, ‘তাদের কথায় বিশ্বাস নেই’

আফগানিস্তানের কাবুল হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তুর্কি সৈন্যরা ২ মাসের শিশু হাদিয়া রহমানির যত্ন নিচ্ছে। (এএ ছবি)

তুর্কি সেনারা ওই বাবা ও শিশুটিকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যান। শিশুটিকে স্নান করান। এরপর তাকে দুধও দেন। পেট ভরে দুধ পান করানোর পর শিশুটিকে বাবার হাতে তুলে দেন তাঁরা। তুর্কি সেনারা কাবুল বিমানবন্দরে প্রতিনিয়ত মানুষকে সাহায্য করছেন। তাঁরা মানুষকে খাবার ও জল সরবরাহ করছেন। তুর্কি সেনাদের এহেন মানবিক রূপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেট-নাগরিকরা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *