প্লে স্টোরে ছড়িয়ে রয়েছে প্রচুর ভুয়ো অ্যাপ, এইভাবে খুঁজে নিন আসলগুলি

google play store

Mysepik Webdesk: স্মার্টফোনের ভিত্তি অবশ্যই অ্যাপ্লিকেশন। সাধারণত গুগল প্লে স্টোর থেকেই আমরা অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করে থাকি। অন্যদিকে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য এই গুগল প্লে স্টোরে ছড়িয়ে রয়েছে বহু ভুয়ো অ্যাপ, যা অবিকল দেখতে আসল অ্যাপের মতোই। তাই অনেক সময় পার্থিককেও বুঝতে না পেরে আমরা সেই ভুয়ো অ্যাপ আসল ভেবে ডাউনলোড করে থাকি। শুধু তাই নয়, এই ভুয়ো অ্যাপগুলি অনেক সময়ই ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য এমনকি ব্যাঙ্কিং ডিটেইলসও চুরি করে। ওই অ্যাপগুলি কার্যত গুগলের সিকিউরিটি সিস্টেমকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে নিজের কার্যসিদ্ধি করে। তবে কয়েকটি সহজ উপায়েই আমরা ওই ভুয়ো অ্যাপগুলিকে আসল অ্যাপ থেকে আলাদা করেত পারি। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই উপায়গুলি কী কী।

আরও পড়ুন: শুক্রগ্রহে মিলল ফসফিন গ্যাসের অস্তিত্ব, প্রাণের অস্তিত্বের আশায় বিজ্ঞানীরা

১) প্লে স্টোরে কোনও অ্যাপ সার্চ করে ডাউনলোড করার সময় একই নামের একাধিক অ্যাপ দেখতে পাওয়া যায়। সেক্ষেত্রে এগুলির ডিটেইলস বা ডেসক্রিপশন থেকে আপনি ভুয়ো এবং আসল অ্যাপের পার্থক্য বুঝতে পারবেন। অনেক সময়ে এগুলির বর্ণনায় বানানও ভুল থাকে।

২) কোনও অ্যাপ ডাউনলোড করার সময় অবশ্যই সেগুলির রেটিং দেখে নিন। রেটিং কম থাকলে ডাউনলোড করার আগে কয়েকবার ভেবে নিন।

৩) অ্যাপ প্রকাশের এবং আপডেটের ডেট ভালো করে দেখবেন, কারণ আসল অ্যাপ্লিকেশনে সবসময় ডেট “আপডেটেড” থাকে।

৪) অ্যাপের বর্ণনার ওপর গুরুত্ব দিন। ভুয়ো অ্যাপ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার উপায় হল সেগুলির ক্ষেত্রে স্ক্রিনশটগুলিতে অদ্ভুত শব্দ এবং অদ্ভুত ফটো থাকতে পারে।

আরও পড়ুন: জেনে নিন, কীভাবে ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়াই গুগল ম্যাপ ব্যবহার করবেন

৫) দেখে নিন অ্যাপগুলি কতবার ডাউনলোড হয়েছে। ৫,০০০ বা তারও কম ডাউনলোড হলে সেগুলি নকল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

৬) সবার শেষে অ্যাপ পারমিশন দেখুন। কোনও অ্যাপ ইন্সটল করলে সাধারণত সেটি ফোনবুক, ডায়লার এবং লোকেশনের অনুমতি চায়। তবে যদি সেটি যদি ক্যামেরা, অডিও, স্টোরেজ এবং আরও কিছু পারমিশন চাইতে থাকে, তবে অবশ্যই সেই অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে খতিয়ে দেখবেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *